বিশ্বনাথে প্রবাসীর স্ত্রীর রহস্যজনক মৃত্যু – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

বিশ্বনাথে প্রবাসীর স্ত্রীর রহস্যজনক মৃত্যু

প্রকাশিত: ২:০৯ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ২৭, ২০১৬

বিশ্বনাথে প্রবাসীর স্ত্রীর রহস্যজনক মৃত্যু

index copyসিলেটের বিশ্বনাথে সৌদী প্রবাসীর স্ত্রীর রহস্যজনক মৃত্যু ঘটেছে। শশুর বাড়ির দাবি সে কীটনাশক খেয়ে আত্মহত্যা করেছে। অপরদিকে পিতৃ পরিবারের দাবি সুজিনাকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে। হত্যার পর আত্মহত্যা বলে প্রচার করা হয়েছে। মৃত সুজিনা বেগম ওরফে খাদিজা আক্তার (১৯) সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলার ছত্রিশ রমজানপুরের সৌদী প্রবাসী করম আলীর স্ত্রী ও একই গ্রামের ছইদুর রহমানের মেয়ে। প্রায় ১০মাস আগে প্রবাসী করম আলী দেশে ফিরে তাকে বিয়ে করেন । কিছুদিন পর তিনি আবার সৌদীতে চলে যান। মঙ্গলবার (২৬ এপ্রিল) রাতে স্বামীর বাড়ির লোকজন ওমর আলী নামের এক সিএনজি অটোরিক্সার চালককে নিয়ে সুুজিনাকে সিলেট ওসমানী হাসপাতালে ভর্তি করেন । রাত পৌনে একটার তার মৃত্যু ঘটলে শশুর বাড়ির লোকজন হাসপাতাল থেকে দ্রুত সটকে পড়েন বলে পুলিশ জানিয়েছে। পরে অটোরিক্সা চালক ওমর আলীর মাধ্যমে খবর পেয়ে মৃতার মা-বাবাসহ স্বজনরা সিলেট ওসমানী হাসপাতালে গিয়ে তার লাশ দেখতে পান। সিলেট কোতোয়ালী মডেল থানা পুলিশ লাশের সুরতহাল করে ময়না তদন্তের জন্য ওসমানী মেডিকেল কলেজ মর্গে প্রেরন করে। ময়না তদন্ত শেষে বিকেলে লাশ গ্রামের বাড়িতে নিয়ে দাফন করা হয়।
সুজিনার মা রইছা বেগমের দাবি তার মেয়েকে শশুরবাড়ির লোকজন পরিকল্পিতভাবে হত্যা করে আত্মহত্যা বলে চালিয়ে দিয়েছেন । তার অভিযোগ শাশুড়ী দের্ব ও ননদরা সুজিনাকে বাপের বাড়িতে নাইওর দিতেন ন্,া স্বামীর সাথে ফোনে আলাপ করতে বাঁধা দিতেন, হাত থেকে মোবাইল ফোন কেড়ে নিতেন। দেবর মফিজ আলী সুজিনাকে সবসময় উত্যক্ত ও যৌনহযরানী করতো। অপর দেবর আফিজ আলী তাকে বকাবকি ও গালমন্দ করতেন। এ ঘটনায় তিনি হত্যা মামলা করবেন বলে সাংবাদিকদের জানিয়েছেন।
ঘটনা পর থেকে সুজিনার শশুর বাড়ির লোকজন আড়ালে চলে যাওয়্য়া তাদের বক্তব্য পাওয়া যায়নি।
মরহুম আব্দুস সামাদ আজাদ জেলা পরিষদ