বিশ্বনাথ উপজেলায় ১৬ গ্রামবাসীর মধ্যে সংঘর্ষ চলছে – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

বিশ্বনাথ উপজেলায় ১৬ গ্রামবাসীর মধ্যে সংঘর্ষ চলছে

প্রকাশিত: ৭:০৫ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৯, ২০১৬

বিশ্বনাথ উপজেলায় ১৬ গ্রামবাসীর মধ্যে সংঘর্ষ চলছে

lamakajiস্টাফ রিপোর্টার:

সিলেটের বিশ্বনাথের লামাকাজি এলাকায় তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে দুই ইউনিয়নের গ্রামের লোকজনের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দেয়। আজ সোমবার (১৯ সেপ্টেম্বর) সকাল ১০টা থেকে বিশ্বনাথ লামাকাজি ও সদর উপজেলার মোগলগাঁও ইউনিয়নের ১৬-১৭ গ্রামের লোকজনের মধ্যে এ সংঘর্ষ চলছে বলে জানা যায়। প্রায় ৩ঘন্টা ধরে সিলেট-সুনামগঞ্জ রাস্তায় যানবাহন চলাচল বন্ধ রয়েছে।
স্থানীয় সূত্র জানায়- গত বুধবার (১৪ সেপ্টেম্বর) লামাকাজি বাজারে যুগীরগাঁওয়ের এক ব্যবসায়ীকে মারধরের ঘটনাকে কেন্দ্র করে মারামারি হয়। এরই জের ধরে উভয় ইউনিয়নের লোকজন মাইকিং করে একে অপরকে মুখোমুখি সংঘর্ষের আহ্বান করে।
এ অবস্থায় সিলেট সদরের মোগলগাঁও ইউনিয়নের পক্ষে যুগীরগাঁও, ধনপুর, আউশা, চাঁনপুর, খিত্তারগাঁও, লালারগাঁও, চৌধুরীগাঁও, তালুকপাড়া, লামারগাঁওসহ ১৬-১৭টি গ্রামের লোকজন ও লামাকাজি ইউনিয়নের পক্ষে মির্জারগাঁও, মাতাবপুর, লামাকাজি, কাজিরগাঁও, দিঘলীসহ ১৫-১৬টি গ্রামের লোকজন দেশীয় অস্ত্র নিয়ে অবস্থান নেয়ার পর এই সংঘর্ষ শুরু হয়।
বিশ্বনাথের লামাকাজি ইউনিয়নের পক্ষের গ্রামবাসী লামাকাজি সেতুর এক প্রান্তে এবং মোগলগাঁও ইউনিয়নের লোকজন সেতুর অপর প্রান্তে সশস্ত্র অবস্থান নেয়।
এদিকে, খবর পেয়ে সিলেট মহানগর পুলিশ উপ-কমিশনার ফয়ছল আহমদের নেতৃত্বে এবং বিশ্বনাথ থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে অবস্থান করেন।
সিলেট মহানগর পুলিশের জালালাবাদ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আখতার হোসেন বলেন- উভয়পক্ষে তুমুল উত্তেজনা বিরাজ করছিল। সংঘর্ষে জড়ালে পুলিশ কঠোর অবস্থানে যাবে।
তবে পরিস্থিতি যেন সংঘর্ষের দিকে না যায় সেজন্য স্থানীয় উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন চেয়ারম্যানরা প্রশাসনকে সঙ্গে নিয়ে বিষয়টি সমাধানের চেষ্টা চালিয়েও কোন লাভ হয়নি।
শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ ঘটনাস্থলে গুলিবর্ষণ করছে বলে জানা গেছে।

বিস্তারিত আসছে………….

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

ফেসবুকে সিলেটের দিনকাল