বিয়ানীবাজারে মাদক সম্রাট জামাল – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

বিয়ানীবাজারে মাদক সম্রাট জামাল

প্রকাশিত: ১২:০৯ পূর্বাহ্ণ, জুলাই ৭, ২০১৫

বিয়ানীবাজারে মাদক সম্রাট জামাল

অলিউর রহমান, বিয়ানীবাাজার::

বিয়ানীবাজারের মাদক সম্রাট হলো আওয়ামী লীগ নেতা জামাল। তার নের্তৃত্বে বিয়ানীবাজারে বিক্রি হয় ইয়াবা, ফেন্সিডিল সহ নানা ধরণের মাদক। আর খুব সহজে ঐ মাদকগুলো খুব সহজে পৌছে যাচ্ছে যুব সমাজের হাতে। ফলে বিয়ানীবাজারের যুব সমাজ ধ্বংস হচ্ছে মাদকের বয়াল ছোবলে।

কিন্তু অদৃশ্য কারণে গ্রেফতার হচ্ছে না জামাল। বরাবরই জামাল থেকে যায় প্রশাসনের ধরা ছোয়ার বাইরে। তবে শীর্ষ এই মাদক ব্যবসায়ীর কাছ থেকে নিয়মিত উৎকোচ নিচ্ছেন কিছু রাজনীতিক নেতা, আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী ও মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের এক শ্রেণির কর্মকর্তা। এ কারণে ধরাছোঁয়ার বাইরে। এসব ব্যবসায়ীর কারণে রাজধানীর অলিগলি, পাড়া-মহল্লায় অবাধে পাওয়া যাচ্ছে ইয়াবাসহ বিভিন্ন মাদক।

বিয়ানীবাজারে কলেজ ও অনেক স্কুলে প্রকাশ্যে চলছে মাদক সেবন। সব পেশার মানুষ এখন মাদকে আসক্ত। বিশেষ করে মেধাবি ও তরুণরাই মাদকে বেশি আসক্ত হচ্ছে। যা ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য বিপর্যয় ডেকে আনবে।

বিয়ানীবাজারের একাধিক সচেতন মহল বলেন, মাদকের টাকা থানার কর্মকর্তা, স্থানীয় রাজনীতক ও মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা নিয়মিত পাচ্ছেন। আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীকে ভাগ না দিয়ে মাদক ব্যবসা করা অসম্ভব। তারা আরো বলেন, অনেক পুলিশ সদস্যের বাসা ভাড়ার টাকা মাদক ব্যবসায়ী বহন করেন। শুধু তাই নয়, পুলিশের বিভিন্ন অনুষ্ঠানের ব্যয়ভার মাদক ব্যবসায়ীরা বহন করেন। তাহলে দোষ শুধু আমাদের কেন?

বিয়ানীবাজারে র‌্যাব ও পুলিশ আমদানীর তুলনায় খুব কম পরিমান মাদক উদ্ধার করতে পারছে। অভিযোগ আছে, সখ্যতা থাকায় মাদক সম্রাটরা থেকে যাচ্ছে অধরা। চুনোপুটি মার্কা ব্যবসায়ীরা পুলিশের জালে বন্দি হলেও এ ব্যবসার আড়ালে থাকা গডফাদাররা গ্রেফতার হয় না। সরকারের বিশেষ একটি সংস্থার রিপোর্ট মোতাবেক বিয়ানীবাজারে কোন না কোন ভাবে জড়িত ১০০ মাদক ব্যবসায়ী রয়েছে।

এসব মাদক ব্যবসায়ীরা প্রায়ই পুলিশ, বিজিবি বা র‌্যাবের হাতে গ্রেফতার হলেও বেশিদিন জেলে আটকে থাকে না। দুর্বল ধারা ও সাক্ষি প্রমানের অভাবে তারা বের হয়ে আসে এবং পুরোদমে মাদক ব্যবসায় জড়িয়ে পড়ে।
এব্যাপারে বিয়ানীবাজার থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) জানান, আমরা মাদক ব্যবসায়িদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত রেখেছি। আর জামালের বিরুদ্ধে তথ্য প্রমাণ নাই । যদি তথ্য প্রমাণ থাকে তাহলে তাকে অবশ্যই গ্রেফতার করা হবে।

ফেসবুকে সিলেটের দিনকাল