মহানগর ও জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগ এর সমাবেশ ও প্রচার মিছিল – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

মহানগর ও জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগ এর সমাবেশ ও প্রচার মিছিল

প্রকাশিত: ৭:০২ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ২৯, ২০১৮

মহানগর ও জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগ এর সমাবেশ ও প্রচার মিছিল

মাদার অব হিউম্যানিটি, বাংলার সফল রাষ্ট্রনায়ক প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার সিলেট আগমন ও আলিয়া মাদ্রাসার মাঠের জনসভা সফল করার লক্ষ্যে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ এর কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন বলেছেন, খালেদা জিয়া রায়ের আগেই তিনি ও বিএনপির নেতাকর্মীরা আবোল তাবোল কথাবার্তা বলছেন। খালেদা জিয়া ও বিএনপি এখন জনবিচ্ছিন্ন দলে পরিণত হয়েছে। দেশের মানুষ খালেদাকে আর এদেশের ক্ষমতায় দেখতে চায় না। এরা দেশের মঙ্গলের জন্য ক্ষমতায় আসে না। জিয়া পরিবার আজ লুটেরা হিসেবেই বিশ্বে তাদের পরিচিতি। তাই বাংলাদেশের জনগণ ও বিশ্ব নেতৃবৃন্দের পছন্দের তালিকায় এদেশ পরিচালনা করতে আবারো শেখ হাসিনা পছন্দের এক নম্বর তালিকায়। তাই পূণ্যভূমি সিলেট থেকেই নৌকার বিজয় শুরু হবে। আমরা ইতোমধ্যে লক্ষ্য করেছি, প্রাণের নেত্রী শেখ হাসিনার জন্য পূণ্যভূমি সিলেটের লাখো মানুষ অধীর আগ্রহে তাকে স্বাগত জানাতে প্রস্তুত। একটি দেশকে উন্নত রাষ্ট্রে পরিণত করতে উন্নয়নমূলক যে কর্মকান্ডের নজির রেখেছে আওয়ামীলীগ সরকার এদেশের মানুষের মধ্যে তা ইতিহাস সৃষ্টি করবে। তাই দলমত নির্বিশেষে দেশের প্রতিটি মানুষ আবারোও বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনাকেই ক্ষমতায় দেখতে চায়। আর সেজন্যই ৩০ জানুয়ারি মঙ্গলবার সিলেট শেখ হাসিনার জনসভা পরিণত হবে জনসমুদ্রে। তিনি আরো বলেন, সিলেটে স্বেচ্ছাসেবক লীগ এর যে গণজাগরণ দেখা যাচ্ছে তা সৃষ্টিতে এই বিভাগে উজ্জ্বল দৃষ্টান্তের প্রমাণ রেখেছেন সুব্রত পুরকায়স্থ তাঁর সাংগঠনিক দক্ষতার প্রমাণ দিয়ে। এই জনসমুদ্রে সফল করতে স্বেচ্ছাসেবক লীগ এর উপর অর্পিত দায়িত্ব গুরুত্বসহকারে পালন করতে হবে। স্বেচ্ছাসেবক লীগই হচ্ছে প্রধানমন্ত্রী ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ভ্যানগার্ড; মঙ্গলবারের জনসভায় সেটির প্রমাণ আবারোও দিতে হবে।
সিলেট মহানগর ও জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগ এর উদ্যোগে ২৯ জানুয়ারি সোমবার প্রচার মিছিল পূর্বে রেজিষ্টারী মাঠে সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে আহমদ হোসেন উপরোক্ত কথাগুলো বলেন।
বিশেষ অতিথি হিসেবে দিক নির্দেশনামূলক বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এডভোকেট মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ, প্রধানমন্ত্রীর সহকারী একান্ত সচিব সাবেক ছাত্রনেতা সাইফুজ্জামান শেখর, কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগের তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক আফজল হোসেন, কেন্দ্রীয় সদস্য এস এম কামাল হোসেন, সিলেট জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক শফিকুর রহমান চৌধুরী, কেন্দ্রীয় শ্রমিকলীগের সহ সভাপতি ও সিলেট জেলা শ্রমিকলীগের সভাপতি প্রকৌশলী এজাজুল হক এজাজ, কানাডা আওয়ামীলীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি সারোয়ার হোসেন।
প্রধান বক্তার বক্তব্যে কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবক লীগ এর সাংগঠনিক সম্পাদক সুব্রত পুরকায়স্থ বলেছেন, ১৯৮১ সালের ২৮মে জননেত্রী শেখ হাসিনা হযরত শাহজালাল মাজার জিয়ারতের মাধ্যমে বাংলাদেশে তার যে রাজনীতি কার্যক্রম শুরু করেছিলেন, তারই ধারাবাহিকতায় নেত্রী আসছেন সিলেটে। তারই অংশ হিসেবে সিলেট মহানগর ও জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের আজকের এই বিশাল সমাবেশ ও প্রচার মিছিল।
মমতাময়ী নেত্রী শেখ হাসিনা জাতীয় বিদ্যুৎ খাতে প্রধান ভূমিকা রেখেছেন, সারা দেশের মানুষ আজ আলো পাচ্ছে। আগামী ভবিষ্যৎ প্রজন্ম শিক্ষা ও প্রযুক্তিতে আলোকিত হচ্ছে। একটি দেশকে খাদ্য সংয়সম্পূর্ণ করতে যে দৃষ্টান্ত রেখেছেন তা বর্তমান বিশ্বে বিরল। আজকে বিধবা ভাতা, বেকার ভাতা, মাতৃত্ব ভাতা ও বিভিন্ন উন্নয়নমূল ভাতার মাধ্যমে দেশের মানুষের আজ কল্যাণ সাধিত হচ্ছে। নানান ষড়যন্ত্রের জাল ছিন্ন করে পদ্মা সেতু আজ দৃশ্যমান। বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী এবং বঙ্গবন্ধুর শত তম জন্ম বার্ষিকী জননেত্রী শেখ হাসিনার প্রধানমন্ত্রীত্বে বাংলাদেশের মানুষ পালন করতে আগ্রহী। বুধবার সিলেট রেজিষ্টারি মাঠ থেকে সমাবেশ পরবর্তী মিছিলে যুক্ত হন কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগের সদস্য ও সিলেট মহানগর আওয়ামীলীগের সভাপতি সাবেক মেয়র বদর উদ্দিন আহমদ কামরান।
সিলেট মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগ এর সভাপতি কাউন্সিলর আফতাব হোসেন খান এর সভাপতিত্বে ও জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগ এর সাধারণ সম্পাদক জালাল উদ্দিন আহমদ এর পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন, কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবক লীগ এর সদস্য জামিল আহমদ, সিলেট জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগ এর সভাপতি আফসার আজিজ, মহানগর শাখার সাধারণ সম্পাদক দেবাংশু দাস মিঠু, সুনামগঞ্জ জেলা শাখার সভাপতি সুয়েব চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক জুবের আহমদ অপু সহ প্রচার মিছিলে উপস্থিত ছিলেন, সিলেট মহানগর ও জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগ এর কার্য নির্বাহী কমিটির সকল নেতৃবৃন্দ সহ সকল থানা, উপজেলা, ওয়ার্ড নেতৃবৃন্দ প্রমুখ।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

ফেসবুকে সিলেটের দিনকাল