মোগলগাঁও ইউনিয়নের গালমশাহ গ্রামে মোবাইল চুরিকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

মোগলগাঁও ইউনিয়নের গালমশাহ গ্রামে মোবাইল চুরিকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা

প্রকাশিত: ১০:২২ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ১৩, ২০১৭

মোগলগাঁও ইউনিয়নের গালমশাহ গ্রামে মোবাইল চুরিকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা

সিলেট সদর উপজেলার মোগলগাঁও ইউনিয়নের গালমশাহ গ্রামের মোবাইল চুরিকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়েছে। যে কোন সময় ঘটতে পারে রক্তক্ষয়ি সংঘর্ষ। এ ব্যাপারে মোবাইলের মালিক সাইফুল ইসলাম বাদী হয়ে জালালাবাদ থানায় একটি সাধারণ ডায়রী করেন, যার নং- ৪৩৫, তাং ১০/১২/১৭ই।
সাধারণ ডায়রী সূত্রে জানা যায়, গত ৯ ডিসেম্বর সন্ধ্যা ৭টায় জালালাবাদ থানাধিন গালমশাহ গ্রামের আব্দুস ছত্তারের ছেলে সাইফুল ইসলামের ব্যবহৃত দুটি মোবাইল যার মডেল ওয়াল্টন-ইএম, মোবাইল নাম্বার ০১৭৩৭ ৮৬৪০৬৫ ও নোকিয়া-১০৮ মোবাইল নাম্বার ০১৭১২ ৫৪৬৬৬৯ হারিয়ে যায়।
হারানোর পর নাম্বারগুলোতে ফোন করে আলাপ করলেও প্রাপক উক্ত মোবাইল ফেরত দিতে অস্বীকার করে। এক পর্যায়ের কৌশল অবলম্বন করে মোবাইল সহ একই গ্রামের কালা মিয়ার ছেলে সামসুলকে তেমুখী থেকে গত ১১ ডিসেম্বর ধরা হয়। একই গ্রামের লোক হওয়ায় গ্রামে উত্তোজনা সৃষ্টি হয়। ধরাপর জালালাবাদ থানাকে বিষয়টি অবগত করলে থানা পুলিশ এসে সামসুলকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়।
গত ১২ ডিসেম্বর বাদী সাইফুল ইসলামকে ডেকে জালালাবাদ থানা নিয়ে যায়। তার বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ রয়েছে বলে তাকে এবং তার সাথে থাকা মামা বাবুল মিয়াও আটক করে। সে সময় অভিযুক্ত সামসুলকে ছেড়ে দেয়া হয়।
গতকাল ১৩ ডিসেম্বর বুধবার সাইফুল ইসলাম ও বাবুল মিয়াকে থানা পুলিশ আদালতে প্রেরণ করলে আদালত তাদেরকে জেল হাজতের প্রেরণ করেন। গতকাল সাইফুল ইসলাম পিতা আব্দুস ছত্তার বাদী হয়ে জালালাবাদ থানায় মোবাইল চুরির একটি মামলা দায়ের করেন। উভয় পক্ষ পাল্টাপাল্টি মামলা করায় এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে।
জালালাবাদ থানার অফিসার ইনচার্জ উভয় পক্ষের মামলার সততা নিশ্চিত করেছেন। এলাকাবাসী বিষয় সঠিক তদন্তের মাধ্যমে নিষ্পত্তির দাবী জানিয়েছেন। বিজ্ঞপ্তি

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

ফেসবুকে সিলেটের দিনকাল