যেভাবে সময় কাটছে বিএনপি চেয়ারপারসনর – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

যেভাবে সময় কাটছে বিএনপি চেয়ারপারসনর

প্রকাশিত: ৬:৪০ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ১৮, ২০১৮

যেভাবে সময় কাটছে বিএনপি চেয়ারপারসনর

গত ৮ ফেব্রুয়ারি জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় ৫ বছরের কারাদণ্ড দিয়ে বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে কারাগারে পাঠান আদালত। আজ রোববার খালেদা জিয়ার কারাবাসের ১১ দিন অতিবাহিত হচ্ছে।
কারাগার সূত্রে জানা গেছে, কারাগারে বেশিরভাগ সময় ইবাদতের মাধ্যমেই সময় কাটাচ্ছেন সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া। অন্যান্য দিনের মতোই শনিবার সকালে রুটি ও সবজি দিয়ে নাস্তা করেছেন। আর দুপুরে ভাত, সবজি ও মাছ খেয়েছেন।
জানা গেছে, আইনজীবী ও স্বজনরা সাক্ষাৎ করতে গেলে মামলা সংক্রান্ত বিষয়ে পরামর্শ দিচ্ছেন ও তাদের মাধ্যমে দলের নেতাকর্মীদেরকে অহিংস ও শান্তিপূর্ণ আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার নির্দেশনা দিচ্ছেন।
এদিকে, খালেদা জিয়ার আইনজীবী সানাউল্লাহ মিয়া সাংবাদিকদের বলেছেন, আজ রোববার বিডিআর বিদ্রোহ মামলার শুনানি থাকায় আইনজীবীর মাধ্যমে তিনি আদালতে হাজিরা দেবেন। বড় পুকুরিয়া দুর্নীতি মামলায় বেগম খালেদা জিয়া জামিনে রয়েছেন। এ মামলায় আজ রোববার বিশেষ জজ আদালত-২-এ শুনানি হওয়ার কথা রয়েছে। ডিসি প্রসেকিউশনের সঙ্গে আমার কথা হয়েছে। তিনি জানিয়েছেন, একই দিন বিডিআর বিদ্রোহের মামলা থাকায় ম্যাডামকে (বেগম খালেদা জিয়া) আইনজীবীর মাধ্যমে হাজিরা দিলেই চলবে।
এর আগে এ মামলায় বেগম খালেদা জিয়াকে হাজির করার জন্য কারা কর্তৃপক্ষের কাছে প্রোডাকশন ওয়ারেন্ট (কারাগার থেকে আদালতে হাজির করানোর জন্য পরোয়ানা) পাঠানো হয়। বেগম খালেদা জিয়াকে কারাগার থেকে আদালতে হাজির করানোর পরোয়ানা (প্রোডাকশন ওয়ারেন্ট বা পিডব্লিউ) জারির আবেদন করেন দুদকের আইনজীবী মোশাররফ হোসেন কাজল। সেখানে বলা হয়, রমনা থানার একটি মামলায় বেগম খালেদা জিয়া সাজাপ্রাপ্ত হয়ে কারাগারে রয়েছেন। তাই তাঁকে হাজির করানোর জন্য পিডব্লিউ জারি করা হোক। শুনানি নিয়ে আদালত ১২ ফেব্রুয়ারি বেগম খালেদা জিয়াকে হাজির করানোর নির্দেশ দেন। উল্লেখ্য, বড়পুকুরিয়া কয়লাখনিতে উৎপাদন, ব্যবস্থাপনা ও রক্ষণাবেক্ষণের জন্য ঠিকাদার নিয়োগে দুর্নীতির অভিযোগে ২০০৮ সালের ২৬ ফেব্রুয়ারি বেগম খালেদা জিয়াসহ ১৬ জনের বিরুদ্ধে শাহবাগ থানায় দুদক এ মামলাটি করে। অভিযোগপত্র দেয়া হয় ২০০৮ সালের ৫ অক্টোবর।