যে কারণে বর্ষসেরা টেস্ট দলে নেই কোহলি-স্মিথ – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

যে কারণে বর্ষসেরা টেস্ট দলে নেই কোহলি-স্মিথ

প্রকাশিত: ২:১০ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ১৭, ২০২০

যে কারণে বর্ষসেরা টেস্ট দলে নেই কোহলি-স্মিথ

স্পোর্টস ডেস্ক

বির্তকিত ২০২০ বর্ষসেরা টেস্ট একাদশ ঘোষণা করেছে ক্রিকেটভিত্তিক জনপ্রিয় ওয়েবসাইট উইজডেন।

যেখানে স্থান হয়নি বর্তমান সময়ের অনেক রথী-মহারথীর। একাদশে ঠাঁই হয়নি ভারত, বাংলাদেশ ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের কোনো ক্রিকেটারের।

এ মুহূর্তে টেস্টের অন্যতম সেরা দুই ব্যাটসম্যান অস্ট্রেলিয়ার স্টিভ স্মিথ ও ভারত দলের অধিনায়ক বিরাট কোহলিরও জায়গা হয়নি উইজডেনে।
এমন একাদশ ঘোষণা করে বিতর্কের মুখে পড়তেই পারে উইজডেন।

অবশ্য এমন একাদশ ঘোষণায় হাত নেই জনপ্রিয় ক্রিকেটভিত্তিক ওয়েবসাইটটির।

কারণ মহামারী করোনার কারণে অনেক তারকাই মাঠে পারফর্ম করার সুযোগ পাননি।

চলতি বছরে সর্বসাকুল্যে ১৮টি টেস্ট ম্যাচ হয়েছে। এই অল্প সংখ্যক ম্যাচ নিয়ে বিশ্বসেরা বাছাই করতে গলদঘর্ম হতে হয়েছে উইজডেনের।

তারপরও সিদ্ধান্ত নিতে না পেরে ১১ ডিসেম্বর ২০১৯ থেকে ১১ ডিসেম্বর ২০২০ পর্যন্ত মাঠে গড়ান ২৩টি টেস্ট ম্যাচের পারফরমেন্স নিয়ে বর্ষসেরা টেস্ট একাদশ বাছাই করেছে উইজডেন।

যেখানে নিউজিল্যানন্ডের অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসনের নেতৃত্বে পাকিস্তানের বাবর আজম জায়গা পেলেও বাদ দেয়া হয়েছে ভারতের বিরাট কোহলিকে। অস্ট্রেলিয়ার মার্নাস লাবুশানের ঠাঁই হলেও বাদ পড়েছেন দেশটির সেরা টেস্ট খেলোয়াড় স্টিভেন স্মিথ।

এমন একাদশ নিয়ে বিতর্ক উঠলেও উইজডেনের মতে কোহলি ও স্মিথের সেখানে ঠাঁই পাওয়ার প্রশ্নই আসে না।

কারণ স্মিথ ও কোহলির না থাকার কারণ বিবেচিত সময়ে তাদের পারফরমেন্স।

১১ ডিসেম্বর ২০১৯ থেকে ১১ ডিসেম্বর ২০২০ পর্যন্ত সময়ে মাত্র তিনটি ম্যাচ খেলেছেন স্মিথ। কোনো সেঞ্চুরি পাননি। তিন ম্যাচের পাঁচ ইনিংসে ৪২.৮০ গড়ে মাত্র ২১৪ রান করতে পেরেছেন স্মিথ।

অন্যদিকে এ সময়ের মধ্যে বিরাট কোহলি খেলেছেন মাত্র দুই টেস্ট। তার সর্বোচ্চ রানের ইনিংস মাত্র ১৯ রানের। সব মিলিয়ে ৯.৫০ গড়ে ৩৮ রানের বেশি করতে পারেননি কোহলি।
তাই উইডেন একাদশে জায়গা হয়নি এই দুই বিশ্বসেরা ব্যাটসম্যানের।

উইজডেনের বর্ষসেরা টেস্ট একাদশ

ডম সিবলি (ইংল্যান্ড), শান মাসুদ (পাকিস্তান), কেন উইলিয়ামসন (নিউজিল্যান্ড, অধিনায়ক), বাবর আজম (পাকিস্তান), মার্নাস লাবুশানে (অস্ট্রেলিয়া), বেন স্টোকস (ইংল্যান্ড), কুইন্টন ডি কক (দক্ষিণ আফ্রিকা, উইকেটরক্ষক), কাইল জেমিসন (নিউজিল্যান্ড), টিম সাউদি (নিউজিল্যান্ড), স্টুয়ার্ট ব্রড (ইংল্যান্ড) ও নাথান লায়ন (অস্ট্রেলিয়া)।

তথ্যসূত্র: উইজডেন, ইএসপিএন ক্রিকইনফো