রাস্তায় ট্রান্সফরমার দুর্ঘটনার শঙ্কা – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

রাস্তায় ট্রান্সফরমার দুর্ঘটনার শঙ্কা

প্রকাশিত: ১১:১৯ পূর্বাহ্ণ, এপ্রিল ২৯, ২০১৬

রাস্তায় ট্রান্সফরমার দুর্ঘটনার শঙ্কা

45f5f6b76077fc0646eb52e04dc672b6-11সিলেট নগরের গুরুত্বপূর্ণ চৌহাট্টা এলাকার প্রধান সড়কের এক পাশে ঠেলাগাড়িতে খাঁচাবন্দী করে রাখা হয়েছে একটি ট্রান্সফরমার। এখানে লেখাও রয়েছে একটি সতর্কবার্তা, ‘হাইভোল্টেজ, ১১০০০ ভোল্ট, বিপজ্জনক’। এ বিপজ্জনক ট্রান্সফরমারের পাশ দিয়েই চলাচল করছে মানুষ। এ অবস্থায় যেকোনো মুহূর্তে দুর্ঘটনার আশঙ্কা করছেন অনেকে।
বিদ্যুৎ বিভাগ সিলেটের এক প্রকৌশলী জানান, গত মঙ্গলবার বজ্রপাতে চৌহাট্টা এলাকার ট্রান্সফরমারটি বিনষ্ট হয়ে যায়। এতে পুরো এলাকা বিদ্যুৎবিহীন হয়ে পড়ে। এ অবস্থায় স্থানীয় লোকজনের স্বার্থে সেখানে ঠেলাগাড়ির মধ্যে একটি অস্থায়ী ‘মোবাইল ট্রান্সফরমার’ স্থাপন করা হয়। দ্রুত মূল ট্রান্সফরমারটি মেরামত করে অস্থায়ীটি সরিয়ে ফেলা হবে।
গতকাল বৃহস্পতিবার সরেজমিনে দেখা গেছে, সিলেট সরকারি মহিলা কলেজের প্রধান ফটক থেকে প্রায় আড়াই হাত দূরে এবং সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের ঠিক বিপরীতেই মোবাইল ট্রান্সফরমারটি লোহার খাঁচাবন্দী করে রাখা হয়েছে। সেখানে ফুটপাতে বাঁশ বেঁধে পথচারীদের চলাচলের রাস্তা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। তাই ফুটপাত দিয়ে যেতে না পেরে ট্রান্সফরমারের পাশ ঘেঁষে সড়ক ধরে চলাচল করছেন পথচারীরা।
পথচারী খায়রুল মিয়া বলেন, ‘ফুটপাত যেহেতু বাঁশ দিয়ে বন্ধ করেই রাখা হয়েছে, তাই মোবাইল ট্রান্সফরমারটি ফুটপাতে রাখলেও দুর্ঘটনা বা ঝুঁকি এড়ানো সম্ভব।’ হাবিবা বেগম বলেন, ‘এখান দিয়ে যাওয়ার সময় আমার আট বছরের মেয়েটিকে কোলে তুলে নিই। কারণ অসাবধানতাবশত যদি সে ট্রান্সফরমারের খাঁচায় হাত ঢুকিয়ে দেয়!’
নাট্যসংগঠক মু. আনোয়ার হোসেন বলেন, শহীদ মিনারের সামনের সড়কের উভয় পাশে মানববন্ধনসহ নানা কর্মসূচি পালিত হয়। এ ছাড়া মহিলা কলেজের ছাত্রীসহ নারী, পুরুষ ও শিশু অনেকেই এ সড়ক দিয়ে চলাচল করে। খেলাচ্ছলে কোনো শিশু ট্রান্সফরমারের খাঁচায় হাত ঢুকিয়ে দিলে দুর্ঘটনার আশঙ্কা থেকেই যায়।
জানতে চাইলে বিদ্যুৎ বিভাগ সিলেটের নির্বাহী প্রকৌশলী (ডিভি-১) মো. আবদুল কাদের প্রথম আলোকে বলেন, স্থানীয় লোকজনের বিদ্যুৎ-দুর্ভোগ দূর করতেই বিকল্প কোনো ব্যবস্থা না থাকায় মোবাইল ট্রান্সফরমারটি সড়কে বসানো হয়েছে। তবে দ্রুততম সময়ের মধ্যে মূল ট্রান্সফরমারটি সারিয়ে সেটি স্থাপন করা হবে।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

ফেসবুকে সিলেটের দিনকাল