শাবিপ্রবিতে নানা কর্মসূচীর মাধ্যমে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

শাবিপ্রবিতে নানা কর্মসূচীর মাধ্যমে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন

প্রকাশিত: ৭:৪০ অপরাহ্ণ, মার্চ ২৬, ২০২১

শাবিপ্রবিতে নানা কর্মসূচীর মাধ্যমে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন

শাবি প্রতিনিধি::
শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে মহান স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী ও জাতীয় দিবসটি যথাযোগ্য মর্যাদায় উদযাপন করা হয়।

২৬শে মার্চ শুক্রবার কর্মসূচির মধ্যে ছিল সকাল ৮টা থেকে দিনব্যাপি বঙ্গবন্ধুর ভাষণ ও দেশাত্ববোধক গান প্রচার, সকাল ৯টা ৫ মিনিটে জাতীয় সংগীত পরিবেশনের সাথে জাতীয় পতাকা ও বিশ্ববিদ্যালয়ের পতাকা উত্তোলন, ৯ টা ২৫ মিনিটে মিনিটে বিশ্ববিদ্যালয়ের শহিদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ, ১০টা ১০ মিনিটে বঙ্গবন্ধু মূর‍্যালে পুষ্পস্তবক অর্পণ, ১০টা ৩০মিনিটে মুক্তিযুদ্ধ কর্ণারের সংস্কারোত্তর উন্মুক্তকরণ ও ১০টা ৪০মিনিটে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে স্মারক গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন।

উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদ ও কোষাধ্যক্ষ প্রফেসর ড. মো. আনোয়ারুল ইসলাম সকাল ৯টা ১৫মিনিটে যথাক্রমে জাতীয় পতাকা ও বিশ্ববিদ্যালয় পতাকা উত্তোলন করেন। ৯ টা ২৫ মিনিটে মিনিটে বিশ্ববিদ্যালয়ের শহিদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পন, ১০টা ১০মিনিটে বঙ্গবন্ধু মূর‍্যালে পুষ্পস্তবক অর্পন, ১০টা ৩০মিনিটে মুক্তিযুদ্ধ কর্ণারের সংস্কারোত্তর উন্মুক্ত করেন।

এ সময় উদযাপন কমিটির আহবায়ক প্রফেসর ড. মো. এস এম সাইফুল ইসলাম, বিভিন্ন অনুষদের ডিন, সিন্ডিকেট সদস্য, বিভাগীয় প্রধান, দপ্তর প্রধান, শিক্ষক সমিতির নেতৃবৃন্দ, ছাত্র উপদেশ ও নির্দেশনা পরিচালক, প্রক্টর (ভারপ্রাপ্ত), অফিসার্স এসোসিয়েশনের নেতৃবৃন্দ সহ বিভিন্ন বিভাগ ও দপ্তরের শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

১০টা ৪০মিনিটে বিশ্ববিদ্যালয়ের মিনি অডিটরিয়ামে ভাইস চ্যান্সেলর ফরিদ উদ্দিন আহমেদ স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে ‘নক্ষত্রের অক্ষরে রচিত’ স্মারক গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন করেন এবং সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে বলেন, স্বাধীনতার পঞ্চাশ বছর বাঙালি জাতির এক অবিস্মরণীয় দিন। লাখো শহীদের রক্তের বিনিয়মে অর্জিত এই স্বাধীনতা আমাদের গৌরব ও অহংকারের স্মারক। এমন একটি দিনে ‘নক্ষত্রের অক্ষরে রচিত’ স্মারকগ্রন্থ প্রকাশ হচ্ছে যা সত্যি আনন্দের। প্রকাশনাটি সত্যি প্রশংসার দাবি রাখে কারন প্রকাশনাটি আন্তর্জাতিক মানসম্পন্ন।

তিনি আরো বলেন, স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে আমি শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করছি হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানসহ সকল বীর শহীদ ও বীরঙনাদের। আমরা ইতোমধ্যে জাতির পিতার সুযোগ্য কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিচক্ষণ নেতৃত্বে অর্থনৈতিক ও সামাজিক বিভিন্ন প্যারামিটারে এশিয়ার অন্য অনেক দেশ থেকে এগিয়ে আছি। ২০৩৫ সালের মধ্যে বাংলাদেশ হবে বিশ্বের সেরা ২৫ বৃহত্তম অর্থনীতির দেশ। এই অগ্রযাত্রা এবং অপার সম্ভাবনাকে কাজে লাগাতে আমাদের সবার একযোগে কাজ করে যেতে হবে।

স্মারক গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন উপলক্ষ্যে এক ভিডিও বার্তায় গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ. কে. আব্দুল মোমেন বলেন, এ বছর আমরা একই সাথে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী এবং মুজিব শতবর্ষ উদযাপন করছি যা জাতীয় জীবনে ঐতিহাসিক দূর্লভ মূহুর্ত।

শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় কতৃক প্রকাশিত ‘নক্ষত্রের অক্ষরে লিখা’ স্মারকগ্রন্থটিও বঙবন্ধুর জীবন চর্চার উপর অনন্য সংযোজন বলে আমি মনে করি। এ ধরনের প্রকাশনার মাধ্যমে পররর্তী প্রজন্ম বঙবন্ধুর জীবন ও কর্ম সম্পর্কে সঠিক অনুধাবন করতে সক্ষম হবে । আমি ভাইস চ্যান্সেলর ফরিদ উদ্দিন আহমেদসহ প্রকাশনার সাথে সংশ্লিষ্ট সকলে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করছি।

কোষাধ্যক্ষ প্রফেসর ড. মো. আনোয়ারুল ইসলাম এর সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য প্রদান করেন নর্থ ইষ্ট ইউনিভার্সিটির ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মো. ইলিয়াস উদ্দীন বিশ্বাস, শিক্ষক সমিতির সভাপতি প্রফেসর ড. তুলসী কুমার দাস। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন বাংলা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. জফির উদ্দিন।

মোড়ক উন্মোচন শেষে ভাইস চান্সেলর প্রফেসর ফরিদ উদ্দিন আহমেদ সৈয়দ মুজতবা আলী হল এবং বাংলা বিভাগে বৃক্ষরোপন কর্মসূচির উদ্বোধন করেন।