শেখ হাসিনার ৫ দফা প্রসঙ্গে জাতিসংঘ মহাসচিব মুখপাত্র:দফা নিয়ে অগ্রসর নয়, কার্যকর ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

শেখ হাসিনার ৫ দফা প্রসঙ্গে জাতিসংঘ মহাসচিব মুখপাত্র:দফা নিয়ে অগ্রসর নয়, কার্যকর ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে

প্রকাশিত: ১:১৮ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২৩, ২০১৭

শেখ হাসিনার ৫ দফা প্রসঙ্গে জাতিসংঘ মহাসচিব মুখপাত্র:দফা নিয়ে অগ্রসর নয়, কার্যকর ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে

রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রস্তাবিত পাঁচ দফা নিয়ে কোনো ভাবনা নেই জাতিসংঘের। শুক্রবার বিশ্বের সবোর্চ্চ এ সংস্থাটির সদরদপ্তরে আয়োজিত নিয়মিত ব্রিফ্রিংয়ে এমন প্রতিক্রিয়াই জানালেন মহাসচিব অ্যান্টোনিও গুতারেসের মুখপাত্র স্টিফেন ডোজাররিক।

রোহিঙ্গা সংকট নিরসনে জাতিসংঘের অবস্থান অত্যন্ত স্পষ্ট মন্তব্য করে মহাসচিবের মুখপাত্র বলেন, সংকট নিরসনে দফার পর দফা প্রস্তাবনা নিয়ে জাতিসংঘ এগুবেনা। ব্রিফ্রিংয়ে অংশ নিয়ে জাস্ট নিউজ সম্পাদক এবং জাতিসংঘের স্থায়ী সংবাদদাতা মুশফিকুল ফজল আনসারির করা প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা জানান।

সাংবাদিক মুশফিকুল জানতে চান, রোহিঙ্গা সংকট নিরসনে জাতিসংঘ মহাসচিব আপ্রাণ চেষ্টা চালাচ্ছেন। যা প্রশংসার দাবি রাখে। শুক্রবার বাংলাদেশ প্রধানমন্ত্রী সাধারণ অধিবেশনে দেয়া ভাষণে রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে জাতিসংঘের কাছে পাঁচ দফা প্রস্তাবনা পেশ করে বাস্তবায়নের সুপারিশ করেছেন। জাতিসংঘ কি এ পাঁচ দফা প্রস্তাবনাকে সমর্থন করে?

দ্বিতীয়তো জাতিসংঘ মহাসচিবের সাথে বৃহস্পতিবার বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী সাক্ষাত করেছেন। রোহিঙ্গা সমস্যা ছাড়া কি আর কোনো বিষয়ে আলোচনা হয়েছে যেমন: মানবাধিকার পরিস্থিতি বা মানুষের ভোটাধিকার প্রতিষ্ঠা-

জবাবে ডুজাররিক বলেন, সাক্ষাতের আলোচনার বিষয়বস্তু আমি গতকাল প্রকাশিত রিডআউটে আপনার মনযোগ আকর্ষণ করবো। আর আপনি যে বিষয়গুলে বলললেন তা নিয়ে আমরা সবসময় বলে আসছি।

মুখপাত্র বলেন, মিয়ানমারের রাখাইনের সংকট নিরসনে জাতিসংঘ মহাসচিব নিজেই উদ্যোগ গ্রহণ করেছেন। এর ভয়াবহতা বিশ্বসম্প্রদায়সহ সকলকে নাড়া দিয়েছে। বাংলাদেশের জনগন রোহিঙ্গাদের পাশে দাড়িয়েছে। সরকার ও জনগন সবযেগিতার হাত প্রশস্ত করেছে। পুরুষ, মহিলা এমনকি শিশুরাও সেখানে  চরম অমানবিক আচরনের শিকার।  রাখাইনের রোহিঙ্গা সম্প্রদায়ের উপর মানবিক বিপর্যয়ে মহাসচিবের অবস্থান অত্যন্ত স্পষ্ট। প্রথমত তিনি সেখানে অনতিবিলম্বে রোহিঙ্গাদের ওপর পরিচালিত সেনা অভিযান বন্ধ করার আহবান জানিয়েছেন। আমরা রাখাইনে অবাধ মানবিক সহায়তা প্রদানের সুযোগ চাই, অবশ্যই তা হতে হবে।  সম্ভাব্য সব ধরনের চেষ্টা মহাসচিব গ্রহন করেছেন।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

ফেসবুকে সিলেটের দিনকাল