সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ: অদৃশ্য শক্তির কাছে পরাজিত সিসিক! ৬৫ লক্ষা টাকার ক্ষয়ক্ষতি – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ: অদৃশ্য শক্তির কাছে পরাজিত সিসিক! ৬৫ লক্ষা টাকার ক্ষয়ক্ষতি

প্রকাশিত: ২:২৪ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১০, ২০১৬

সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ: অদৃশ্য শক্তির কাছে পরাজিত সিসিক! ৬৫ লক্ষা টাকার ক্ষয়ক্ষতি

akram১০ সেপ্টেম্বর ২০১৬, শনিবার: অবৈধ দখলদারদের দাপট, পুলিশ প্রশাসনের অসহযোগিতা ও সিসিক কতৃপক্ষের ব্যর্থতার কারণে ইজারা নিয়েও পশুর হাট স্থাপন করতে পারলেন না ইজারাদার। প্রায় ২৭ লক্ষ টাকা মূল্যে সিলেট সিটি কর্পোরেশনের মাছিমপুর কয়দীর মাঠ সংলগ্ন এলাকায় (এমএমুহিত ক্রীড়া কমপ্লেক্রা) পশুর হাটটি ইজারা নিয়ে ছিলেন নগরীর ছড়ারপারের ব্যবসায়ী সিরাজুল ইসলাম শামীম। কিন্তু সিসিক কতৃপক্ষ অবৈধ দখল দারদের কাছ থেকে পশুর হাটটি উদ্ধার করে ইজারাদারকে সমজিয়ে দিতে ব্যর্থ হন। অসহায় ইজারাদার শামীম সিলেট জেলা প্রশাসক, এসএমপি কমিশনার, কতোয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ও সিসিকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এনামুল হাবিব কে বিষয়টি অবগত করেন। তিনি সিটি কর্পোরেশনের ব্যর্থতার কারনে প্রায় ৬৫ লাখ টাকার ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে বলে দাবি করেন। তিনি অভিযোগ করে বলেন সিসিক কর্তৃপক্ষ আমাদের সংঘাতের পথে ঠেলে দিয়ে ছিল। যা থেকে নিজেকে বাঁচাতে হাট না সমজে নেই নাই। এজন্য আমি ক্ষতিপূরণ পাওয়ার ব্যাপারে সংবাদিক বন্ধূগণের আন্তরিক সহযোগিতা কামনা করছি।
শনিবার সিলেট জেলা প্রেসক্লাবে আয়োজিত এক সাংবাদিক সম্মেলনে তিনি তার ক্ষতিপূরণ পাওয়ার ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত, স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী সহ সংশিষ্ট সকল দফতরের সহযোগিতা কামনা করেন। সংবাদ সম্মেলনের লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন বিগত ১ সেপ্টেম্বর মাছিমপুর কয়েদির মাঠ সংলগ্ন এলাকায় কোরবানির পশুর হাট ইজারা দেওয়ার দরপত্র আহবান করে সিসিক। এতে আমি টেন্ডার জমা দিলে সর্বোচ্চ দরদাতা নির্বাচিত হই। ০৫সেপ্টেম্বর সিসিক কর্তৃপক্ষ আমাকে অফিসিয়ালি আমাকে কার্যাদেশ প্রদান করেন। ৬ সেপ্টেম্বর সরজমিনে পশুর হাটের নির্দিষ্ট স্থান বুঝিয়ে দিতে আসেন।
তখন অবৈধ দখলদারদের বাঁধার মুখে পড়ে পশুর হাটের নির্দিষ্ট স্থান বুঝিয়ে দিতে ব্যর্থ হয়। কেননা স্থানীয় কাউন্সিলর ও ক্ষমতাসীন দলের কতিপয় সন্ত্রাসী ইতিমধ্যে সিসিকের এই হাটটি দখল করে রেখে ছিল। ৭ সেপ্টেম্বর তিনি সিসিকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এনামুল হাবিব বরাবরে ৪৫ লাখ টাকার ক্ষতিপুরণ চেয়ে লিখিত আবেদন করি। এ সময় সিসিক প্রধান প্রকৌশলী নুর আজিজ ৮ সেপ্টেম্বর আমাকে হাট বুঝিয়ে দেওয়ার আশ্বাস দেন। সে অনুযাই ঐদিন দুপুর সাড়ে ১২টায় সিসিক প্রধান প্রকৌশলী নুর আজিজ মোবাইল কোর্ট নিয়ে এসে অবৈধ দখলদারদের উচ্ছেদ করতে চেষ্টা করেন। এসময় দখলদারদের সশ¯্র বাঁধার মুখে আবারও ব্যর্থ হয়ে ফিরে যান। তখন তিনি ২৪ ঘন্টার মধ্যে আমাকে হাট বুঝিয়ে দিবেন বলে আবারও আশ্বস্থ করেন। তিনি চলে যাওয়ার পর অবৈধ দখলদাররা ক্ষিপ্ত হয়ে হাটে পরিকল্পিতভাবে সশ¯্র হামলা চালিয়ে ২০ লাখ টাকা ক্ষতি করে। তাদের হামলা চলাকালে হাট থেকে অনুমানিক নগদ ৬লক্ষ টাকা লুট করে নিয়ে যায়।
এদিকে, সিসিক প্রধান প্রকৌশলী নুর আজিজ বেঁধে দেওয়া সময় অতিবাহিত হয়ে গেলেও সিসিক কর্তৃপক্ষ আমাকে হাট বুঝিয়ে দেওয়ার কোনোধরণের পদক্ষেপ গ্রহন করেনি। এমতাবস্থায় আবারও সর্বমোট ৬৫ লাখ টাকার ক্ষতিপুরণ চেয়ে সিসিক প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এনামুল হাবিব বরাবরে লিখিত আবেদন করেন ইজারাদার। একজন সাধারণ ব্যবসায়ী হিসাবে দেশের অর্থনীতি ও ব্যবসার কথা বিবেচনা করে অসহায় হয়ে আপনাদের মাধ্যমে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সুযোগ্য কন্যা দেশরতœ শেখ হাসিনা, সিলেটের অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত ও স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও সিলেট জেলা প্রশাসককে বিষয়টি অবগত করতে চাই।
২৭ লক্ষ টাকা নিয়ে কয়েদির মাঠ সংলগ্ন পশুর হাট ইজারা দিলেও হাটটি বুঝিয়ে দিতে পূর্ণাঙ্গভাবে ব্যর্থ হয় তারা। ক্ষমতাসীন দলের কিছু সংখ্যক ব্যক্তির প্রভাবের কাছে বারবার হার মানছেন তারা। সিসিকের এমন কর্মকাণ্ডে আমি অসহায় হয়ে সিলেট মেট্টোপলিটন পুলিশের সহযোগিতা চেয়ে পুলিশ কমিশনার বরাবরে লিখিত আবেদন করি। অনুলিপি দেই সিলেট মেট্টোপলিটন পুলিশের ডিসি উত্তর, ওসি কোতোয়ালী থানাকে। ইতোপূর্বেও এই প্রতি বছরের ন্যায় এবারও রাজনৈতিক চত্রছায়ায় অবেধভাবে এই স্থান দখল করে পশুর হাট করা নিয়ে বিভিন্ন গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে। কিন্তু কোন কিছুর তোয়াক্কা না করে কোন এক অদৃশ্য শক্তির ইশারায় একটি চক্র প্রতিবছর এই স্থানে পশুর হাট বসিয়ে অর্থনৈতিক ফায়দা হাসিল করে আর সরকার বঞ্চিত হয় লাখ লাখ টাকার রাজস্ব থেকে। ইজারাদার শামীম বলেন ইজারা পেয়ে আমি নিরাপত্তাহীন হয়ে পড়ি। রাজনৈতিক ছত্রচ্ছায়া ক্ষমতাসীন দলের কিছু সংখ্যাক ব্যাক্তির কাছে হার মানা সিসিক কর্তৃপক্ষের কাছে পশুর হাট ইজারা নিয়ে যে পরিমান টাকার ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছি তা ফেরত পাওয়ার দাবী জানান।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

ফেসবুকে সিলেটের দিনকাল