সংবিধানের ১১৬ অুনচ্ছেদের সংশোধনী কেন অবৈধ নয়: হাইকোর্ট – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

সংবিধানের ১১৬ অুনচ্ছেদের সংশোধনী কেন অবৈধ নয়: হাইকোর্ট

প্রকাশিত: ১:০৩ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২৬, ২০১৭

সংবিধানের ১১৬ অুনচ্ছেদের সংশোধনী কেন অবৈধ নয়: হাইকোর্ট

নিজস্ব প্রতিবেদক : অধস্তন আদালতের বিচারকদের বদলি, পদোন্নতি ও শৃঙ্খলায় রাষ্ট্রপতির ক্ষমতা সংক্রান্ত ১১৬ অুনচ্ছেদের সংশোধনী কেন অবৈধ ঘোষণা কর হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট।

রবিবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) বিচারপতি কাজী রেজা-উল হক ও বিচারপতি মোহাম্মদ উল্লাহর হাইকোর্ট বেঞ্চ এ রুল জারি করেন।মন্ত্রিপরিষদ সচিব, আইন সচিবসহ সংশ্লিষ্টদের চার সপ্তাহের মধ্যে এই রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।আদালতে আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী ইউনুছ আলী আকন্দ। পরে রুল জারির বিষয়টি তিনি সাংবাদিকদের নিশ্চিত করেন।

তবে তিনি জানিয়েছেন, এই অনুচ্ছেদ ছাড়াও বিচারকদের উচ্চ আদালতের বিচারকদের নিয়োগ সংক্রান্ত ৯৫ (২) (৬) ও ৪৮ (৩) অনুচ্ছেদ নিয়েও রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট। সবশেষ গত ২০ ফেব্রুয়ারি মামলাটি আদেশের জন্য ২৬ ফেব্রুয়ারি দিন নির্ধারণ করেছিলেন। এর আগে ২২ নভেম্বর শুনানি শেষে আদালত রিট আবেদনটি মুলতবি রেখেছিলেন।

গত ৩ নভেম্বর রিট আবেদনটি করেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ইউনুছ আলী আকন্দ। যেখানে অধস্তন আদালতের শৃঙ্খলা বিধান ছাড়াও উচ্চ আদালতের বিচারক নিয়োগ সংক্রান্ত সংবিধানের ৯৫ (১) অনুচ্ছেদকেও রিটে চ্যালেঞ্জ করা হয়েছে।

রিট আবেদনে ৯৫ (১) ও ১১৬ অনুচ্ছেদকে সংবিধানের ২২ ও ১০৯ এবং বিচার বিভাগ পৃথকীকরণ সংক্রান্ত মাসদার হোসেন মামলায় রায়ে প্রদত্ত নির্দেশনার সঙ্গে কেন সাংঘর্ষিক ও অবৈধ ঘোষণা করা হবে না, —তা জানতে চেয়ে রুল জারির নির্দেশনা চাওয়া হয়েছে।

রিটে আইন সচিব, মন্ত্রিপরিষদ সচিব, জাতীয় সংসদের স্পিকার ও সুপ্রিম কোর্টের রেজিস্ট্রারকে বিবাদী করা হয়েছে। রিটের কারণ হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে, সংবিধানের ১০৯ অনুচ্ছেদ অনুযায়ী সুপ্রিম কোর্টের হাতে অধস্তন আদালতের নিয়ন্ত্রণের ক্ষমতা দেওয়া হয়েছে। নিয়ন্ত্রণ কার্যকর করতে ১৯৭২ সালের সংবিধানের ১১৬ অনুচ্ছেদে অধস্তন আদালতের পূর্ণাঙ্গ দায়িত্ব ছিল সুপ্রিম কোর্টের। কিন্তু ১৯৭৫ সালে চতুর্থ সংশোধনীর মাধ্যমে এই দায়িত্ব দেওয়া রাষ্ট্রপতির হাতে এককভাবে। পরবর্তীতে ১৯৭৯ সালে পঞ্চম সংশোধনীতে রাষ্ট্রপতির এই দায়িত্ব প্রয়োগে সুপ্রিম কোর্টের সঙ্গে পরামর্শ সংক্রান্ত বিধানটি সংযোজন করা হয়।

মুন সিনেমা হল সংক্রান্ত মামালায় পঞ্চম সংশোধনী বাতিল হলে সেই অনুযায়ী ২০১১ সালে সংবিধানের পঞ্চদশ সংশোধনী করা হয়। তবে ওই সংশোধনীতে ১১৬ অনুচ্ছেদের বিধানটি রেখে দেওয়া হয়। গত ৩১ অক্টোবর বিচার বিভাগ পৃথকীকরণের ৯ বছর পূর্তি উপলক্ষে এক বাণীতে বলেন, ১১৬ অনুচ্ছেদ বিচার বিভাগের ধীরগতির অন্যতম কারণ। তাই বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে প্রণীত ১৯৭২ সালের সংবিধানের ১১৬ অনুচ্ছেদটি পুনঃপ্রবর্তন হওয়া সময়ের দাবি।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

ফেসবুকে সিলেটের দিনকাল