সমাজে অশান্তির মূলে রয়েছে অনৈতিক শিক্ষা ব্যবস্থা – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

সমাজে অশান্তির মূলে রয়েছে অনৈতিক শিক্ষা ব্যবস্থা

প্রকাশিত: ১০:৪০ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১৪, ২০১৯

সমাজে অশান্তির মূলে রয়েছে অনৈতিক শিক্ষা ব্যবস্থা

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের আমীর মুফতী সৈয়দ মুহাম্মদ রেজাউল করীম (পীর সাহেব চরমোনাই) বলেছেন, মাহফিল ময়দানে দুনিয়া লাভের কোনো উদ্দেশ্য নিয়ে কেউ এসে থাকলে তাদের নিয়ত পরিবর্তন করে একমাত্র আল্লাহকে রাজি খুশি করার জন্য এ ময়দানে বসতে হবে। কারণ নিয়তের ওপর সকল কাজ নির্ভরশীল। তাই নিয়তকে আগে পরিশুদ্ধ করতে হবে।
বৃহস্পতিবার সিলেট আলীয়া মাদ্রাসা মাঠে বাংলাদেশ মুজাহিদ কমিটি সিলেট জেলা শাখার উদ্যোগে ৩দিন ব্যাপী বিশাল ওয়াজ মাহফিলে উদ্বোধনী বক্তব্যে পীর সাহেব চরমোনাই উপরোক্ত কথাগুলো বলেন।
সুলতানপুর মাদ্রাসার মুহতামিম আনোয়ারুল হক চৌধুরী সভাপতিত্বে তিনি বলেন, দুনিয়াতে যতদিন ওহীভিত্তিক শিক্ষা ব্যবস্থা থাকবে ততদিন দুনিয়া টিকে থাকবে। কোরআনের শিক্ষার অভাবে মানুষ চরিত্রহীন হচ্ছে। কোরআনী শিক্ষায় শিক্ষিত জাতি কখনো অনৈতিক কাজে জড়াতে পারে না। সমাজে অশান্তির মূলে রয়েছে নৈতিকতাহীন শিক্ষা ব্যবস্থা। ইলমে ওহীর শিক্ষা প্রসারে সকলকে একযোগে কাজ করতে হবে।
বাংলাদেশ মুজাহিদ কমিটির সিলেট বিভাগীয় বিভাগীয় ইমাম কাম অডিটর মাওলানা রেদওয়ানু হক চৌধুরী রাজুর সভাপতিত্বে চরমোনাই পীর আরও বলেন, ইসলাম কল্যাণের ধর্ম। মানবতা শান্তির ধর্ম। ইসলামকে বিশ্বব্যাপী কলুষিত করতে ইসলামবিরোধী শক্তিগুলো জঙ্গিবাদ ও আইএসের জন্ম দিয়েছে। বিশ্বব্যাপী ইসলামের সুমহান পতাকাতলে প্রতিদিন হাজার হাজার মানুষ শামিল হচ্ছে। এ থেকে তাদেরকে ফিরিয়ে নিতেই আইএস ও জঙ্গিবাদের উত্থান ঘটানো হয়েছে। ইসলাম চরমপন্থা ও জঙ্গিবাদে বিশ্বাসী নয়। তিনি সকলকে ইসলামবিরোধী সকল কর্মকান্ডে ব্যাপারে সতর্ক থাকার আহ্বান জানান।
তিনি বলেন, রাজনীতি মানুষের কল্যাণের জন্য। যে রাজনীততে কল্যাণ নেই, মঙ্গল নেই, সে রাজনীত মানুষ করতে পারে না। ইসলাম এসেছে কল্যাণের জন্য, বিজয়ের জন্য। ইসলাম আজ পরাজিত বলেই মানুষ মুক্তি ও শান্তি পাচ্ছে না। শান্তি পেতে হলে সকলকে ইসলামের সুমহান পতাকাতলে ফিরে আসতে হবে।
উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন- হযরত মাওলানা মাহমুদুল হাসান ওলিঊল্লাহ পীর সাহেব বরগুনাহ, বাংলাদেশ কোরআন শিক্ষা বোর্ডের সিনিয়র প্রশিক্ষক হযরত মাওলানা মিজানুর রহমান, বাঘা মাদ্রাসার মুহাদ্দিস মাওলানা হেলাল আহমদ, মাওলানা নুরুল ইসলাম শায়খে বরইগ্রামী, শ্রীরামপুর মাদ্রাসার মুহাদ্দিস মুফতি সাঈদ আহমদ প্রমুখ।