‘সরকারের ফাঁদে পা দেবে না বিএনপি’ – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

‘সরকারের ফাঁদে পা দেবে না বিএনপি’

প্রকাশিত: ৫:৪৭ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২৪, ২০১৮

‘সরকারের ফাঁদে পা দেবে না বিএনপি’

বিএনপি শান্তিপূর্ণ ও ধৈর্য সহকারে আন্দোলন করছে, করবে। কিন্তু সরকারের ফাঁদে পা দিবে না বলে জানিয়েছেন দলটির ভাইস চেয়ারম্যান খন্দকার মাহবুব হোসেন।

জাতীয় প্রেসক্লাবে শনিবার দুপুরে বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে এক প্রতিবাদ সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন।

সমাবেশের আয়োজন করে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী কর্মজীবী দল।

খন্দকার মাহবুব বলেন, আজকে যদি আমরা মিছিল করতাম, হরতাল দিতাম, তাহলে সরকারি বাহিনী মিছিলে ঢুকে গাড়ি পোড়াতো, পেট্রলবোমা মারত, অতীতে যা হয়েছে। সে কারণেই আমরা অত্যন্ত সচেতনভাবে দেশে যাতে অরাজক পরিস্থিতি সৃষ্টি না হয় তাই শান্তিপূর্ণভাবে আন্দোলন করে যাচ্ছি। এর অর্থ এই নয় যে বিএনপির আন্দোলন করার ক্ষমতা নাই। আমরা অত্যন্ত ধৈর্য সহকারে আন্দোলনে আছি, থাকব। কিন্তু সরকারের ফাঁদে পা দিব না।

তিনি বলেন, আগামীকাল বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার জামিন আবেদন করা হবে। দেশে যদি আইনের শাসন লেশমাত্র থাকে তাহলে তিনি মুক্তি পাবেন, জামিন পাবেন।

তিনি ফিরে এসে যে কোনো সময় ডাক দিবেন, তখন কিন্তু আমাদের রাস্তায় নামতে হবে। সেই রাস্তায় নামাটাই হবে শেষ নামা। যেদিন তিনি রাস্তায় নামার নির্দেশ দিবেন সেই দিনই এই সরকারের শেষ দিন হবে।

এই আইনজীবী বলেন, দেশের মানুষেরও ধৈর্যের সীমা আছে। আমাদের এই শান্তিপ্রিয় আন্দোলন পর্যায়ক্রমে গণআন্দোলনে রুপ নেবে, অতীতে যা হয়েছে। স্বৈরাচারী সরকাররা কখনও ইচ্ছাকৃতভাবে যায় না। গণঅভ্যুত্থানের মধ্য দিয়েই তাদের পতন ঘটাতে হয়েছে। এবারও তাই হবে।

বিএনপিকে রাস্তায় থাকতে হবে জানিয়ে তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এসে প্রপাগণ্ডা ছড়িয়েছে বেগম খালেদা জিয়া এতিমের টাকা মেরে খেয়েছেন, দুর্নীতি করেছেন। আদালত রায় দিয়েছেন। কিন্তু উচ্চ আদালতের প্রধান বিচারপতিকে তাড়িয়ে দেয়ার পর দেশে বিচার বিভাগের স্বাধীনতা বলে কিছু থাকে না। স্বাভাবিকভাবেই নিম্ন আদালতগুলো সরকারের ইচ্চার প্রতিফলন ঘটাচ্ছে। তাই আমাদের রাজপথে থাকতে হবে। রাস্তায় থাকতে হবে।

আয়োজক সংগঠনের সহ-সভাপতি সালাউদ্দিন পিপিএম’র সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন, সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক আলতাফ হোসেন সরদার, বিএনপির শিশু বিষয়ক সম্পাদক আবুল কালাম সিদ্দিক, দেশ বাঁচাও মানুষ বাঁচাও আন্দোলনের সভাপতি কে এম রকিবুল ইসলাম রিপন প্রমুখ।