সাংবাদিক লিটনকে নিয়ে জেলা প্রেসক্লাবের স্মারকলিপিতে যা বলেন ৩ গ্রামবাসী – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

সাংবাদিক লিটনকে নিয়ে জেলা প্রেসক্লাবের স্মারকলিপিতে যা বলেন ৩ গ্রামবাসী

প্রকাশিত: ৯:৪১ অপরাহ্ণ, জুন ৩, ২০২০

সাংবাদিক লিটনকে নিয়ে জেলা প্রেসক্লাবের স্মারকলিপিতে যা বলেন ৩ গ্রামবাসী
ডেস্ক রিপোর্ট
নিরীহ লোকজনকে মিথ্যা মামলায় হয়রানী, মিথ্যা ও ভিত্তিহীন সংবাদ প্রচার করে চরিত্রহননে নিজামুল হক লিটনের বিরুদ্ধে সিলেট জেলা প্রেসক্লাবে লিখিত অভিযোগ দাখিল করা হয়েছে। ২ মে মঙ্গলবার সিলেট জেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি বরাবরে সাধারণ সম্পাদকের কাছে পৃথক পৃথকভাবে এই অভিযোগুলো দাখিল করেন আলমপুর গঙ্গারামের চক, গঙ্গানগর গ্রামবাসী ও আলমপুর এলাকাবাসী। নিজামুল হক লিটনের বিরুদ্ধে দাখিলকৃত অভিযোগে প্রায় ১২৯জন এলাকাবাসী স্বাক্ষর করেন।
অভিযোগে তারা উল্লেখ করেন, নিজামুল হক লিটন মোগলাবাজার থানার আলমপুর গঙ্গারামের চক গ্রামের দেলোয়ার হোসেনের ছেলে। কথিত এই নিজামুল হক লিটনের অপকর্ম ও হয়রানিতে এলাকাবাসী অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছেন। তিনি সাংবাদিক পরিচয়ে মিথ্যা সংবাদ প্রচারের হুমকী দিয়ে এলাকার নিরীহ লোকজনের কাছ থেকে চাঁদাবাজি ও ব্ল্যাকমেইলসহ নানা ধরণের হয়রানি করে আসছেন। কেউ চাঁদা না দিলে তা বিরুদ্ধে মিথ্যা সংবাদ প্রকাশ করে চরিত্রহনন ও হয়রানি করে যাচ্ছেন তিনি। নিজের একাধিক ফেসবুক একাউন্ট থেকেও লিটন এলাকার বিভিন্ন বিশিষ্ট ব্যক্তির নামে কুৎসা রটনা ও অপপ্রচার চালিয়ে আসছেন।
অভিযোগে আরো উল্লেখ করা হয়, এলাকার কয়েকজন সচেতন ব্যক্তি এসব অপকর্মের প্রতিবাদ করলে তাদের নামে ভুয়া সংবাদ প্রচার ও মিথ্যা মামলায় জড়িয়ে হয়রানি করছেন। ফলে এলাকার নিরীহ মানুষ ভয়ে আতঙ্কে তার বিরুদ্ধে কথা বলতে চায় না। এলাকার কেউ বাড়ি ঘর নির্মান করতে গেলে উক্ত নিজামুল হক লিটন নির্মাণকারী ব্যক্তির নিকট চাঁদা দাবী করে। চাঁদা না দিলে সে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ও অনলাইনে সংবাদ প্রকাশ করে নির্মাণকারী ব্যক্তিকে হয়রানী করেন। দক্ষিণ সুরমার পারাইরচক এলাকায় সিলেট সিটি কর্পোরেশনের বর্জ্য ফেলে ফসলী জমি বিনষ্ট হওয়ার ফলে স্থানীয় কৃষকরা জমির উপরে থাকা আবর্জনা অপসারণ করলেও উক্ত নিজামুল হক লিটন জমির টপ সয়েল কেটে ফেলা হচ্ছে মর্মে সংবাদ প্রচার করে লোকজনকে হয়রানী করে এবং জমির উপর থেকে আবর্জনা অপসারণ করলে তাকে চাঁদা দিয়ে কাজ করতে হবে বলে হুমকী দেয়। এছাড়া, স্থানীয় ইউপি মেম্বার জনসাধারণের চলাচলের রাস্তায় মাটি ফেললে মেম্বারের কাছেও চাঁদা দাবী করে লিটন। তাই নিজামুল হক লিটনের সকল অপকর্মের সুষ্ঠু তদন্ত সাপেক্ষে তার বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে কর্তৃপক্ষের সুদৃষ্টি কামনা করছেন এলাকাবাসী।

ফেসবুকে সিলেটের দিনকাল