সিলেটে একটি পরিবারে খুনের মিছিল : বিধবাদের সমাবেশ – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

সিলেটে একটি পরিবারে খুনের মিছিল : বিধবাদের সমাবেশ

প্রকাশিত: ১১:০৬ পূর্বাহ্ণ, আগস্ট ২১, ২০১৬

সিলেটে একটি পরিবারে খুনের মিছিল : বিধবাদের সমাবেশ

IMG_0160

২১ আগস্ট ২০১৬, রবিবারসিলেটে একটি পরিবারে খুনের মিছিল। শনিবার (২০আগস্ট) দিবগাত রাত পর্যন্ত গত কয়েকবছরে পর পর একই পরিবারে খুন হয়েছেন ৩ সহোদর ও তাদের এক ছেলে । সন্ত্রাসীদের হামলায় পঙ্গুত্ব বরন করেছে পরিবারের আরেক ছেলে। সম্পত্তি দখল ও এলাকায় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে পর পর এ খুনের ঘটনা ঘটে। সর্বশেষ শনিবার রাতে খুন হয়েছেন পরিবারের অন্যতম কর্তাব্যক্তি শেখ তাজুল ইসলাম ওরফে তাজুল। পরপর খুনের ঘটনায় একই পরিবারে ঘটেছে অকাল বিধবাদের সমাবেশ।

সিলেট নগরীর শেখঘাটের খুলিয়াপাড়াস্থ সিলেট সিটি কর্পোরেশনের সাবেক সংরক্ষিত সাবেক কাউন্সিলর শাহানা বেগম শানুর স্বামী শেখ ত্জাুল ইসলাম। কিছুদিন পূর্বে তিনি কারাগার থেকে জামিনে মুক্ত হন। একটি খুনের মামলায় ষড়যন্ত্রমূলক আসামী করে তাকে কারাগারে পাঠনো হয়েছিল। শনিবার রাতে শেখ তাজুল ইসলাম বন্দরবাজার থেকে নিজ বাসায় যাওয়ার পথে খুন হন। রাত ১০টায় নগরীর শেখঘাটস্থ গরম দেওয়ান মাজারের সামনে পৌছা মাত্র মোটর সাইকেল আরোহী একদল সন্ত্রাসী তার চোখে মরচের গুড়ো ছিটিয়ে গুরুত্বর ভাবে কোপিয়ে পালিয়ে যায় সন্ত্রাসীরা। আশংকাজনক অবস্থায় তাকে সিলেট ওসমানী হাসপাতালে প্রেরন করা হলে রাত কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত বলে জানান। ঘটনার পর কোতোয়ালী পুলিশ অভিযান চালিয়ে শেখঘাট-খুলিয়াপাড়া এলাকার গুলজার ও তার বাহিনীর ৫ সদস্যকে আটক করে। এর দু’বছর আগে ওই সন্ত্রাসীরা তাজুল ইসলামের ছেলে কলেজ ছাত্র সোহান ইসলামকে একই স্থানে কোপিয়ে খুন করে। পরে তার অপর ছেলেকে গুরুতর জখম করে অন্ধ করে দেয়। এর আগে এলাকার সন্ত্রাসীরা তাজুল ইসলামের আরো দুই ভাইকে খুন করে। এ নিয়ে সাবেক কাউন্সিলর শানুর পরিবারে খুনের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে চার-এ।
অভিযোগ পাওয়া গেছে শেখঘাট এলাকার গুলজার ও হাফিজ বাহিনী দখলবাজিসহ আধিপত্য বিস্তারের লক্ষ্যে একের পর এক করে তাজুল পরিবারের ওই চারজনকে খুন করে।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

ফেসবুকে সিলেটের দিনকাল