সিলেটে ওসিসহ ৭ পুলিশের বিরুদ্ধে মার্কিন নাগরিকের মামলা – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

সিলেটে ওসিসহ ৭ পুলিশের বিরুদ্ধে মার্কিন নাগরিকের মামলা

প্রকাশিত: ৯:০৮ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৮, ২০১৬

সিলেটে ওসিসহ ৭ পুলিশের বিরুদ্ধে মার্কিন নাগরিকের মামলা

oc-golapgong-01১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৬, রবিবার: সিলেটের গোলাপগঞ্জ থানার ওসি ও ২ পুলিশ কর্মকর্তাসহ ৭ জনের বিরুদ্ধে ঘুষ ও চাঁদাবাজির মামলা হয়েছে। সিলেটের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট ২য় আদালতে এ মামলা (নং-১৯৩) করেন গোলাপগঞ্জের লামাচন্দরপুর গ্রামের বাংলাদেশী বংশদ্ভুত মার্কিন নাগরিক মো.ফলিক উদ্দিন খান। এই মামলা দায়েরের প্রেক্ষিতে এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। প্রবাসী অধ্যুষিত গোলাপগঞ্জে সিলেটের যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী মো. ফলিক উদ্দিনকে পুলিশি হয়রানির ঘটনায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন দেশে বিদেশে অবস্থানরত সিলেটের প্রবাসীরা।
মার্কিন নাগরিক ফলিকের অভিযোগ, অপরাধী ও পুলিশের যৌথ হয়রানীতে পড়ে তিনি মারাত্মক ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছেন। মার্কিন এই নাগরিকের দায়েরকৃত মামলার আসামীরা হচ্ছেন সিলেটের গোলাপগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) এ.কে.এম ফজলুল হক শিবলী, থানার এসআই মশিউর রহমান ও এসআই মো.জাফর এবং থানার লামা চন্দরপুরের মুহিবুর রহমানের পুত্র নিজাম উদ্দিন,একই গ্রামের মৃত আব্দুশ শহীদের পুত্র আব্দুস ছোবহান ও মাহমুদুর রহমানের পুত্র সেলিম। আদালতের নির্দেশে মামলাটি সিলেটের পুলিশ সুপারের কাছে তদন্তের জন্য প্রেরণ করা হয়েছে।
অভিযোগে প্রকাশ, মর্কিন নাগরিক মো. ফলিক উদ্দিন খান বছরে প্রায় ১০মাস বাংলাদেশে অবস্থান করে এলাকার শিক্ষাসহ নানা উন্নয়নমূলক কর্মকান্ড পরিচালনা করে থাকেন। আর একারনে উন্নয়নবিরোধী স্বার্থান্বেষী মহল তার বিরুদ্ধে উঠে পড়ে লেগেছে। তারা থানা পুলিশকে ম্যানেজ করে তাকে নানাবিধ হয়রানীসহ তার কাছ থেকে আর্থিক ফায়দা হাসিলের চেষ্টা করে থাকে। গোলাপগঞ্জ থানার বর্তমান ওসি এ.কে.এম ফজলুল হক শিবলী তার অধীনস্থ এসআই মশিউর রহমান ও এসআই জাফর সহএলাকার স্বার্থান্বেষীদের পাঠিয়ে সম্প্রতি মর্কিন নাগরিক মো. ফলিক উদ্দিন খানের কাছ থেকে ১লাখ টাকা ঘুষ আদায় করে নেন। এছাড়াও গত ৬সেপ্টেম্বর পর্যন্ত বিভিন্ন সময়ে তার কাছে আরো ১০লাখ টাকা ঘুষ ও চাঁদা দাবি করে আসছেন। টাকা না দিলে মার্কিন নাগরিক মো. ফলিক উদ্দিন খানকে গ্রেফতারসহ তার উপর নির্যাতন করা হবে বলে হুমকি-ধমকি অব্যাহত রেখেছেন।
সিলেটের গোলাপগঞ্জ থানার ওসি এ.কে.এম ফজলুল হক শিবলীর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি ঘুষগ্রহণ ও ঘুষ দাবির অভিযোগ অস্বীকার করে সাংবাদিকদের জানান, অযাচিত প্রভাব বিস্তার করতে গিয়ে এলাকাবাসীর বাঁধার সম্মুখীন হয়ে মিথ্যা অভিযোগে ফলিক উদ্দিন এ মামলা করেছেন।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

ফেসবুকে সিলেটের দিনকাল