সিলেটে পার্লারের আড়ালে অসামাজিক কার্যক্রলাপের অভিযোগ – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

সিলেটে পার্লারের আড়ালে অসামাজিক কার্যক্রলাপের অভিযোগ

প্রকাশিত: ৫:৫৩ অপরাহ্ণ, মার্চ ১৬, ২০১৭

সিলেটে পার্লারের আড়ালে অসামাজিক কার্যক্রলাপের অভিযোগ

সিলেট নগরীর দক্ষিণ সুরমায় একটি বাসায় অনৈতিক কার্যক্রলাপের দায়ে তিন জোড়া যুব-যুবতীকে আটক করে ছেড়ে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে কদমতলী পুলিশ পাড়ির এএস আই জামলের বিরুদ্ধে।

জানা গেছে, দক্ষিণ সুরমার শিববাড়ি এলাকায় বিসমিল্লাহ মার্কেটের ভিতরে পূজা বিউটি পার্লারের মাধ্যমে লোক চক্ষুর আড়ালে দীর্ঘদিন থেকে অসামাজিক কার্যক্রলাপ চালিয়ে আসছে একটি মহল। গত ১১ মার্চ কদমতলী পুলিশ পাড়ির এএস আই জামলের নেতৃত্বে একদল পুলিশ পার্লারের মালিক রঞ্জিত সরকারের বাসায় হানা দেয়। এসময় ওয়েছ মিয়ার বাসার ভাড়াটিয়া রঞ্জিত রসকারের আওতায় থাকা একটি কক্ষ থেকে ৬ যুবক যুবতীকে আপত্তিকর অবস্থায় হাতেনাতে ধরে পুলিশ। তখন লয়লু মেম্বার নামে একজন এসে পুলিশের সাথে আতাত করে বিষয়টি ধামাচাপা দিতে মোটা অংকের টাকা তুলে দেন পুলিশের হাতে। একপর্যায়ে আটককৃত তিন তরুণী রোজী বেগম, রিমা বেগম, আয়শা বেগম এবং এক তরুণ কল্যাণসহ সবাইকে ছেড়ে দেয় পুলিশ।

বিষয়টি জানাজানি হলে শিববাড়িসহ গোটা এলাকায় আলোচনা-সমালোচনা করতে দেখা যায়। স্থানীয় সূত্র জানায় ওয়েছ মিয়ার বাসাভাড়া নিয়ে মেয়েদের দিয়ে অসামাজিক কার্যক্রলাপ চালিয়ে বাসাটিকে পতিতালয়ে পরিণত করেছেন। এখন এ এলাকায় অপরিচিত লোকদের আনাগোনাও বেড়েছে।

এব্যাপারে পুলিশ ফাড়ির এএসআই জামাল বলেন, অনৈতিক কার্যক্রলাপের অভিযোগে পুলিশ সেখানে গিয়েছিল কিন্তু এধরণের কোনো কিছু পাওয়া যায়নি।

পার্লারের মালিক ও বাসার ভাড়াটিয়া রঞ্জিত সরকার বলেন, আমি নয় মাস থেকে এখানে পার্লারের ব্যবসা করে আসছি। পার্লারের ব্যবসায় মেয়েদের রাখতে হয়। তাই বলে অনৈতিক কার্যক্রলাপের কোনো প্রশ্নই উঠে না। এলাকার কয়েকজন মিলে এধরনের ষড়যন্ত্র চালিয়ে আমাকে সমাজে হেয়পতিপন্ন করার চেষ্ঠা করছেন বলে তিনি অভিযোগ করেন।

স্থানীয় কয়েকজন রঞ্জিত সরকারের অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, রঞ্জিত সরকারের অসামাজিক কার্যক্রলাপে অতিষ্ট হয়ে উঠেছেন স্থানীয়রা। তার এমন অনৈতিক কাজে এলাকার সুনাম নষ্ট হচ্ছে। তাই তাকে এই বাসা থেকে বের করে দেয়া হোক বলে তাঁরা মন্তব্য করেন।

সূত্র: বেঙ্গল টাইমস

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

ফেসবুকে সিলেটের দিনকাল