সিলেট ছাত্রদলের কোন্দল ফের মাথাচাড়ার আশঙ্কা – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

সিলেট ছাত্রদলের কোন্দল ফের মাথাচাড়ার আশঙ্কা

প্রকাশিত: ১১:২০ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ৬, ২০১৬

সিলেট ছাত্রদলের কোন্দল ফের মাথাচাড়ার আশঙ্কা

Sylhet JCD--16.07.16৬ সেপ্টেম্বর ২০১৬, মঙ্গলবার: আবারও সিলেট ছাত্রদলের পুরনো কোন্দল মাথাচাড়া দিয়ে ওঠার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। দুই বছর মেয়াদি জেলা ও নগর ছাত্রদলের কমিটির মেয়াদ পূর্ণ হওয়ার আগেই মাঠে নেমেছেন বিদ্রোহীরা। বর্তমান কমিটিকে ব্যর্থ আখ্যা দিয়ে কেন্দ্রের কাছে নতুন কমিটি গঠনের দাবি জানিয়েছেন তারা। ইতিমধ্যে এলাকায় এলাকায় শোডাউনও শুরু হয়েছে বিদ্রোহীদের পক্ষ থেকে। গত শনিবার ছিল তারেক রহমানের কারমুক্তি দিবস। এ উপলক্ষে বিদ্রোহীদের পক্ষ থেকে হজরত শাহজালাল (রহ.) মাজারে মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করা হয়। বিদ্রোহীদের কারণে সেখানে পদবিধারী নেতারা যেতে পারেননি।
সংগঠন সূত্র জানায়, ২০১৪ সালের ১৮ সেপ্টেম্বর সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক ও সাংগঠনিক সম্পাদক পদে ছয়জনের নাম ঘোষণা করে নগর ও জেলা ছাত্রদলের নতুন কমিটি গঠন করা হয়। এর সঙ্গে সঙ্গে পদবঞ্চিত নেতাকর্মীদের মধ্যে বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে। একপক্ষ সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে সরাসরি কমিটি প্রত্যাখ্যান করে।
উভয় পক্ষ কয়েকবার সংঘর্ষেও জড়ায়। কমিটি ঘোষণার প্রায় ছয় মাস পর্যন্ত চলে পক্ষে-বিপক্ষে পাল্টা তৎপরতা। এ অবস্থায় জেলা ও নগর ছাত্রদলের নতুন কমিটির মেয়াদ শেষ হচ্ছে আগামী ১৮ সেপ্টেম্বর। নতুন করে কমিটি নিয়ে বড় ধরনের সহিংসতার আশঙ্কা করছেন ছাত্রদলের অনেক নেতা।
ইতিমধ্যে জেলা ও নগর ছাত্রদলের বর্তমান সভাপতি ও সম্পাদককে ‘ব্যর্থ’ আখ্যায়িত করে ২৬ আগস্ট সিলেটের ছাত্রদল রক্ষায় কেন্দ্রের কাছে আবেদন জানিয়েছেন বর্তমান ও গত কমিটির বিভিন্ন পদে থাকা ১১ নেতা। বিবৃতিতে বলা হয়, জেলা ও মহানগর ছাত্রদলের ঘোষিত কমিটির মেয়াদ উত্তীর্ণ হতে আর বেশি দিন বাকি নেই। অথচ এখনও পূর্ণাঙ্গ কমিটি হয়নি। গঠন করা হয়নি বিভিন্ন উপজেলা, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও নগরের ওয়ার্ড কমিটিও। বর্তমান কমিটির ব্যর্থতার কারণে সিলেট ছাত্রদল ছত্রভঙ্গ হয়ে পড়েছে। নগর ও জেলার বর্তমান ব্যর্থ নেতৃত্বকে বিলুপ্ত করে নতুন কমিটি গঠন করার দাবি জানানো হয় বিবৃতিতে।
এ প্রসঙ্গে জেলা ছাত্রদলের সাবেক সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক শাকিল মুর্শেদ বলেন, ‘আমরা ইতিমধ্যে কেন্দ্রের কাছে আবেদন জানিয়েছি সিলেট ছাত্রদল রক্ষায়। কেন্দ্রের কাছে দাবি, তৃণমূলের মতামত নিয়ে নতুন করে কমিটি দেওয়া হোক।’
জেলা ও নগর কমিটি গঠনের পর থেকেই বিরোধিতা করে আসছেন সদর উপজেলা ছাত্রদলের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক আবদুর রউফ। তিনি বলেন, ‘আমরা প্রথম থেকেই বলে আসছি ছাত্রদের হাতে ছাত্রদলের নেতৃত্ব দেওয়ার জন্য। কিন্তু আজগুবি একটি কমিটি দিয়ে সিলেট ছাত্রদলকে হুমকির মুখে ফেলে দেওয়া হয়েছে। বর্তমান কমিটি এখন পর্যন্ত একটিও কলেজ কমিটি করতে পারেনি। একইভাবে জেলা কমিটিও তাদের গন্তব্যে পেঁৗছতে পারেনি।’ জেলা ছাত্রদলের যুগ্ম সম্পাদক নাজিম উদ্দিন পান্না জানান, এ কমিটি প্রথম থেকেই বিতর্কিত। মেয়াদ শেষ হওয়ার পর পরই তিনি পদত্যাগ করবেন। যারা চালিযে যেতে চান বা পদ আঁকড়ে থাকতে চান তিনি তাদের পক্ষে নন। নতুনরা যাতে দায়িত্ব পান সে লক্ষ্যেই কাজ করবেন বলে তিনি জানান।
তবে সব অভিযোগ অস্বীকার করে জেলা ছাত্রদলের সভাপতি সাঈদ আহমদের দাবি, প্রায় সব উপজেলা ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে নতুন কমিটি হয়েছে। সাম্প্রতিক পরিস্থিতির কারণে কমিটিগুলো কৌশলী হয়ে কাজ করছে। তিনি বলেন, ‘সংগঠন চালাতে গিয়ে আমার বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে, জেল খেটেছি। এরপরও যারা ব্যর্থ বলছে, তারা আসলে কারও এজেন্ডা বাস্তবায়ন করছে।’

সূত্র- দৈনিক সমকাল

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

ফেসবুকে সিলেটের দিনকাল