সিলেট ছাত্রলীগে ‘ছাত্রদলের অনুপ্রবেশ’ নিয়ে তোলপাড় – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

সিলেট ছাত্রলীগে ‘ছাত্রদলের অনুপ্রবেশ’ নিয়ে তোলপাড়

প্রকাশিত: ৩:৫৮ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ৩১, ২০১৬

সিলেট ছাত্রলীগে ‘ছাত্রদলের অনুপ্রবেশ’ নিয়ে তোলপাড়

daily-jcd৩১ অক্টোবর ২০১৬, সোমবার: ক্ষমতাসীন দল বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের ছাত্রসংগঠন ছাত্রলীগের বিভিন্ন শাখায় ইসলামী ছাত্রশিবির-ছাত্রদলের অনুপ্রবেশকারী ধরা পড়ছে। রাজনীতিতে বিরোধী শক্তিগুলোর অবস্থান নাজুক হওয়ায় বিভিন্ন সংগঠনের নেতাকর্মীরা ছাত্রলীগে আশ্রয় নিচ্ছেন বলে অভিযোগ রয়েছে খোদ ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের। আর দল ভারি করতে অনেক ছাত্রলীগ নেতা অনুপ্রবেশকারীদের প্রশ্রয় দিচ্ছেন বলেও অভিযোগ রয়েছে। তবে ছাত্রলীগ কোনো অনুপ্রবেশকারীকে প্রশ্রয় দেবে না বলে হুশিয়ারী উচ্চারণ করেছেন সিলেটের স্থানীয় ও কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের কয়েকজন শীর্ষ নেতা।

ছাত্রলীগে অনুপ্রবেশকারীদের নিয়ে সংগঠনের শাখাগুলোর বিভিন্ন স্তরের নেতাকর্মীরা প্রকাশ্যেই সমালোচনা করেন। অনেকেই সংগঠনে আস্থার সংকট দেখা দেওয়ার কথাও বলেন। এভাবে চললে ‘হাইব্র্রিড ছাত্রলীগের’ ভিড়ে ‘প্রকৃত ছাত্রলীগ’ খুঁজে পাওয়া কঠিন হবে বলেও মন্তব্য তাদের। কিন্তু ক্ষমতাসীন দল হওয়ায় শীর্ষ নেতৃত্বের বিরাগভাজন হওয়ার আশংকায় গণমাধ্যমে সরাসরি বক্তব্য দিতে রাজি হননি ছাত্রলীগের বেশিরভাগ নেতাকর্মী। তবে সাম্প্রতিক বিভিন্ন ঘটনাপ্রবাহে এসব অভিযোগ আরও জোরদার হচ্ছে।
বর্তমান সময়ে সিলেট ছাত্রলীগে এক ছাত্রদল নেতার অনুপ্রবেশের অভিযোগ উঠেছে। ঐ ছাত্রলীগ নেতা সৈয়দ সাব্বির পূর্বে সিলেট ছাত্রদলের প্রথম সারি থেকে বিভিন্ন সময়ে সরকার বিরোধী নানা কর্মর্সূচিতে অংশ নেন। এমনকি তিনি সিলেট মহানগর ছাত্রদলের জয়েন্ট সেক্রেটারী উমেদুর রহমান উমেদ এর গ্র“পে একজন সক্রিয় ছাত্রদল কর্মী হিসেবে ভূমিকাও পালন করেছেন দীর্ঘদিন। কিন্তু হঠাৎ করে আওয়ামীলীগ ও ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের সাথে বিভিন্ন কর্মসূচী ও অনুষ্ঠানে সাব্বিরের যোগদান নিয়ে সিলেট রাজনীতিপাড়ায় বইছে নানা গুঞ্জন।

গত ৩০ অক্টোবর সিলেট জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি আলী হোসেনের ফেইসবুক ওয়ালে পরপর দু’টি স্ট্যাটাসে উঠে আসে এমন চাঞ্চল্যকর তথ্য। এনিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সৃষ্ঠি হয় তোলপাড়। তার স্ট্যাটাসের নিচে কয়েকটি ছবিও রয়েছে। একটি ছবিতে দেখা যায় সৈয়দ সাব্বির বিএনপির-ছাত্রদলের একটি মিছিলের সামনে থেকে নেতৃত্ব প্রদান করছেন। অন্য ছবি গুলোতে আওয়াওয়ামীয়লীগ ও ছাত্রলীগের নেতৃবৃন্দের সাথে বিভিন্ন অনুষ্ঠানে তার সক্রিয় অবস্থানের চিত্র দেখা যায়। একটি ছবিতে সাব্বিরের সাথে সিসিকের সাবেক কাউন্সিলর আওয়ামীলীগ নেতা সালেহ আহমদ চৌধুরী সেলিম ও সিলেট মহানগর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল আলীম তুষারও রয়েছেন।

এব্যপারে সিলেট মহানগর ছাত্রদলের যুগ্ম সম্পাদক উমেদুর রহমান উমেদ এর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, সাব্বির এক সময় ছাত্রদলের একজন সক্রিয় কর্মী ছিলো। প্রায় তিন বছর আগে দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের কারনে তাকে ছাত্রদল থেকে বের করে দেয়া হয়। বর্তমানে ছাত্রদলের সাথে তার কোন সম্পৃক্ততা নেই বলেও জানান উবেদ।

এবিষয়ে ছাত্রলীগ নেতা আলী হোসেন বলেন, সাব্বির একসময় ছাত্রদলে থেকে বিভিন্ন অপকর্মে লিপ্ত ছিলো। সাংগঠনিক শৃঙ্খলা ভঙ্গের কারনে যে কর্মীকে ছাত্রদল থেকে বের করে দেওয়া হয়। সে কিভাবে ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের সাথে উঠা বসা করতে পারে। তবে কি ছাত্রলীগে নেতাকর্মীদের এতোই অভাব পড়ে গেলো। এব্যাপারে তিনি সাব্বিরের আশ্রয়-প্রশ্রয় দাতাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলে বলেন, বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেনের নিকট এ সক্রান্ত কাগজপত্র, তথ্য ও প্রমানাদি প্রেরণ করছি। আশা করি সিলেট ছাত্রলীগকে সুরক্ষিত রাখতে তিনি যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন।

এদিকে সালেহ আহমদ চৌধুরী সেলিম জানান, সাব্বির ছাত্রলীগ করে এবং আব্দুল আলীম তুষারের সাথে থাকে। তবে সে আগে ছাত্রদল করতো কিনা জানা নেই বলে উল্লেখ্য করেন তিনি।

কিন্তু সিলেট মহানগর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল আলিম তুষারের সাথে একাধিকবার ফোনে যোগাযোগ করা হলেও তিনি ফোন রিসিভ করেন নি।

এ সব বিষয়ে কথা বলতে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেনের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ছাত্রদল থেকে ছাত্রলীগে অনুপ্রবেশের পর ছাত্রলীগ করা ও ছাত্রলীগ নেতৃবৃন্দের ছত্রছায়ায় থাকার কোন অভিযোগ পাওয়া গেলে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তিনি বলেন ছাত্রলীগ পরিচ্ছন্ন রাজনীতিতে বিশ্বাসী। এ সংগঠনে কোন অনুপ্রবেশকারীর স্থান নেই।

সংবাদের স্বার্থে যোগাযোগ করা হলে একাধিক নেতৃবৃন্দ বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়তে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সভানেত্রী সফল প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে ছাত্রলীগ নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। সরকারের উন্নয়ন বাধাগ্রস্ত করতে বিভিন্ন সময়ে ষড়যন্ত্র চালানো হয়েছে কিন্তু সকল ষড়যন্ত্র প্রতিহত করে ছাত্রলীগ তার লক্ষ ও উদ্দেশ্য বাস্তবায়নে কাজ করে যাচ্ছে। তাই এখনও যেকোন ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করতে ছাত্রলীগ প্রস্তুত রয়েছে।

উল্লেখ্য এর আগেও সিলেট এমসি বিশ্ববিদ্যালয় কলেজে আহনাফ আবেদীন আবিদ নামের এক শিবির কর্মী নিজের পরিচয় গোপন রেখে ছাত্রলীগে অনুপ্রবেশের দায়ে পুলিশে তুলে দেন ছাত্রলীগ নেতৃবৃন্দ।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

ফেসবুকে সিলেটের দিনকাল