সিলেট জেলা পরিষদ নির্বাচনে ১নং ওয়ার্ডে সম্ভাব্য সদস্য প্রার্থী নির্যাতিত ছাত্রনেতা নজমুল ইসলাম – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

সিলেট জেলা পরিষদ নির্বাচনে ১নং ওয়ার্ডে সম্ভাব্য সদস্য প্রার্থী নির্যাতিত ছাত্রনেতা নজমুল ইসলাম

প্রকাশিত: ৮:৫৫ পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ২৫, ২০১৬

সিলেট জেলা পরিষদ নির্বাচনে ১নং ওয়ার্ডে সম্ভাব্য সদস্য প্রার্থী নির্যাতিত ছাত্রনেতা নজমুল ইসলাম

nojmul-piiiii২৫ অক্টোবর ২০১৬, মঙ্গলবার: সারা বাংলাদেশের সব জেলা পরিষদ গুলোতে নির্বাচন অনুষ্ঠিত আগামী ডিসেম্বর। তফসিল ঘোষনা করা শীঘ্রই। সিলেট জেলা পরিষদ নির্বাচনে ১ নং ওয়ার্ড সিলেট সিটি কর্পোরেশন, সিলেট সদর উপজেলা পরিষদ, জালালাবাদ, হাটখোলা, টুলটিকর, মোগলগাঁও এবং কান্দিগাঁও ইউনিয়ন পরিষদ সমন্বয়ে গঠিত ১ নং ওয়ার্ডের সম্ভব্য সদস্য প্রার্থী তরুণ নির্যাতিত ছাত্রনেতা, সমাজকর্মী নজমুল ইসলাম। এই ওয়ার্ডের ভোটার সংখ্যা ১০৫ জন।

নজমুল ইসলামের সংক্ষিপ্ত পরিচিতি:
মোঃ নজমুল ইসলাম সিলেট দক্ষিণ সুরমা উপজেলা বরইকান্দি কাজিরখলা এলাকার একটি সম্ব্যন্ত মুসলিম পরিবারে ১৯৯২ ইংরেজী সালের ২৪ই আগষ্ট জন্ম গ্রহণ করেন। সাবেক সেনা কর্মকর্তা ও শালিস ব্যাক্তিত্ব মোঃ নূর উদ্দিন ও ইউ কে প্রবাসী মোছাঃ নুরুন নাহারের ৩য় পুত্র তিনি। দাদা মরহুম হাজী তিতু মিয়া সিলেটে সুনামধন্য ঠিকাদার ছিলেন। চাচা জিন্দবাজার আহমদ ম্যানশন ও সিলেট প্লাজার বিশিষ্ট ব্যবসায়ী হাজী মঈদ উদ্দিন ও আজির উদ্দিন। বর্তমানে জিন্দাবাজারস্থ আল-মারজান শপিং সিটি’র তামান্না ফেব্রিক্স ও মা পরিবহনের স্বাত্বাধীকারী। এলএলবিতে পড়াশুনা করছেন।
১৯৯৭ সালে বরইকান্দি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে শিক্ষা জীবন শুরু করেন। ২০০২ সনে দক্ষিণ সুরমা মকন উচ্চ বিদ্যালয়ে পড়াশুনা শেষে ২০০৫ সনে তিনি সিলেট টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজে ভর্তি হন। সেখান থেকে শুরু হয় তার ছাত্র রাজনীতির পথ চলা। সেই ধারাবাহিকতায় সিলেট টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজ স্টুডেন্ট ফোরাম‘র সভাপতি পাশাপাশি কলেজ ছাত্রদল ও পাশবর্তী সিলেট পলিটেকনিক্যাল ছাত্রদলের নেতৃত্ব দিয়ে আসছেন তিনি।
২০০৯ সনে তিনি ১০ শ্রেণী ফাইনেল পরীক্ষার দেওয়ার কথা থাকলেও পরীক্ষার ঠিক পূর্ব মুহুর্তে স্থানীয় ছাত্রলীগ কর্তৃক দায়ের কৃত একটি ষড়যন্ত্র মূলক মামলা তাকে কারাগারে যেতে হয়। দীর্ঘ প্রায় দেড় মাস কারা বরণের পর তিনি জামিনে মুক্তি লাভ করেন। কারাগার থেকে বের হয়ে পরবর্তী বছরে তিনি এসএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে কৃতিত্বের সহিত উত্তীর্ণ হন। পরবর্তীতে তিনি ঐ কলেজে একাদশ শ্রেণীতে ভর্তি হন।
২০১৩ সনে যখন তিনি এইচএসসি ফাইনেল পরীক্ষা অংশগ্রহণ করবেন ঠিক তার আগের দিন বিএনপির ডাকে দেশব্যাপী অবরোধ চলাকালে বিক্ষোভ মিছিল থেকে র‌্যাব-৯‘র একটি টিম মিছিলে ধাওয়া করে তাকে গ্রেফতার করে। প্রত্যেক বার গ্রেফতারের পর তার উপর চালানো হয়েছে পাশবিক নির্যাতন। গ্রেফতারের দীর্ঘ ২ মাস পর সেই মামলায় জামিনে মুক্তি লাভ করেন।
২০১৪ সনে সিলেট টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজ থেকে এইচএসসি সম্পন্ন করেন। দীর্ঘ ছাত্র রাজনীতির জীবনে তিনি এই অল্প বয়সে বেশ কয়েকটি মামলার আসামী হয়েছেন। পড়া-শুনার ক্ষতি সাধিত হয়েছে অপূরন্ত।
১০ বছরের ছাত্র রাজনীতিক জীবনে তিনি বিএনপির চেয়ারপার্সন সাবেক সফল প্রধানমন্ত্রী দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া ও কেন্দ্রীয় এবং স্থানীয় বিএনপির ঘোষিত সকল কর্মসূচিতে তার উপস্থিত ছিল সরব। তিনি এলাকার সামাজিক দাবী দাওয়া আদায়ের আন্দোলন সংগ্রামের সক্রিয় ভূমিকা পালন করে আসছেন।

ছাত্রদলের এই জনপ্রিয় মুখ তরুণ ছাত্রদল নেতা মোঃ নজমুল ইসলাম সিলেট টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজ স্টুডেন্ট ফোরাম‘র সভাপতি, জাতীয়তাবাদী তরুণ প্রজন্ম দল সিলেট মহানগর শাখার সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক, সিলেট ফ্রেন্ডস উন্নয়ন পরিষদের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব সততা ও নিষ্ঠার সহিত পালন করে আসছেন।