সিলেট সিটি’র পানি শাখায় অনিয়ম অসহায় অনুমোদিত এসটিমিটাররা – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

সিলেট সিটি’র পানি শাখায় অনিয়ম অসহায় অনুমোদিত এসটিমিটাররা

প্রকাশিত: ১০:২৭ পূর্বাহ্ণ, আগস্ট ২৮, ২০১৬

সিলেট সিটি’র পানি শাখায় অনিয়ম অসহায় অনুমোদিত এসটিমিটাররা

sylhet city২৮ আগস্ট ২০১৬ইং, রবিবার: সিলেট সিটি কর্পোরেশনের পানি শাখায় চলছে চরম অনিয়ম-দূর্নীতি। কাজ পা”চ্ছন না অনুমোদিত প্লান বিং এসটিমিটাররা। সংশ্লিষ্টরা এসটিমিট গ্রহণ করে ফেলছেন বহিরাগত যে কোন ব্যক্তি ও জনের। ফলে ঠিকাদার হয়েও কাজ থেকে বঞ্চিত রয়েছেন নির্ধারিত এসটিমিটাররা।
জানা গেছে,সিলেট সিটি কর্পোরেশনে পানির লাইনের প্লান বিং এসটিমিট-এর জন্য রয়েছেন লাইসেন্সধারী চারজন এসটিমিটার। তারা হচ্ছেন মো. আবুলণ হোসেন, দীপন, শাহাদত ও অতুল সিংহ। দীর্ঘদিন ধরে তারা বিভিন্ন বাসা-বাড়ির পানির লাইনের এসটিমিট দিয়ে আসছিলেন। বিনিময়ে বৈধভাবে মজুরীও পেয়ে যাচ্ছিলেন তারা। কিন্তু সাম্প্রতিক সময়ে পানি শাখার প্রকৌশলীরা টু-পাইসের বিনিময়ে বিধিবহির্ভূত বাইরের যে কোন জনের দেয়া এসটিমিট গ্রহণ করে পানির লাইন দিয়ে দিচ্ছেন। আর সংযোগ গ্রাহকরা টাকার বিনিময়ে ইচ্ছেমত এসটিমিট করিয়ে লাইন ও সংযোগ হাসিল করে নিচ্ছেন সিেিলট সিটি কর্পেরেশন থেকে।
সম্প্রতি সিলেট নগরীর পূর্ব জিন্দাবাজারস্থ ওয়াহিদভিউ-এর পানি সংযোগ লাইনের এসটিমিট করা হয়েছে লাইসেন্সধারী এসটিমিটার ছাড়াই বহিরাগত এসটিমিটার দিয়ে। পাশপাশি মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে প্লান বিং এসটিমিট গ্রহণ করা হয়েছে সিলেট সিটি কর্পোরেশনের পানি শাখায়। এছাড়াও সিটি কর্পোরেশন বহির্ভূত এলাকা কল্যাণপুর ৪৩/২ বাসাসহ কয়েকটি বাসায় এবং বালুচরের কয়েকটি বাসায় পানির লাইন অনুমোদন দেয়া হয়েছে নির্ধারিত এসটিমিটার ছাড়াই। বহিরাগত এসটিমিটারদের দিয়ে ইচ্ছেমত প্লান বিং এসটিমিট করিয়ে নিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা। ফলে একদিকে যেমন বৈধ এসটিমিটাররা তাদের প্রাপ্য কাজ থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন, অপরদিকে অবৈধ এসটিমিটাররা আর্থিক দিক দিয়ে লাভবান হচ্ছেন। পাশাপাশি সিলেট সিটি কর্পোরেশনও ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছে বলে নির্ধারিত এসটিমিটাররা অভিযোগ করেছেন।
এব্যাপারে সিলেট সিটি কর্পোরেশনের পানি শাখার এক্স.ই. আলী আকবর-এর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি সিলেট সিটি কর্পোরেশনের পানি শাখায় ঠিকাদার-এসটিমিটার থাকার কথা সম্পূর্ন অস্বীকার করে জানান, পানি শাখার প্লান বিং এসটিমিট সাব ইঞ্জিনিয়াররাই (এ.সই) করে থাকেন। তারা কাদের সাহায্যে এসটিমিটি গ্রহণ করেন সেটা একমাত্র তারাই জানেন।
এ ব্যাপারে সিলেট সিটি কর্পোরেশনের পানি শাখার ভারপ্রাপ্ত পরিদর্শক এস.ই এনাম তফাদারের সাথে শনিবার (২৮আগস্ট) বিকেল ৪টায় মুঠোফোনে যোগাযোগের চষ্টা করা হলে তিনি সাংবাদিকের ফোন রিসিভ করেন নি।