সুদূর প্রবাস থেকে বড় বোনের জন্য আবেগপ্রবণ খোলা চিঠি “হাজিরা চৌধুরী আজরার” – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

সুদূর প্রবাস থেকে বড় বোনের জন্য আবেগপ্রবণ খোলা চিঠি “হাজিরা চৌধুরী আজরার”

প্রকাশিত: ৭:০৮ অপরাহ্ণ, জুলাই ৩০, ২০২১

সুদূর প্রবাস থেকে বড় বোনের জন্য আবেগপ্রবণ খোলা চিঠি  “হাজিরা চৌধুরী আজরার”

প্রিয় ভাবময়ী’ রুমি আপা-
জানাই আমার
অফুরন্ত ভালোবাসা।
তুমি আমার ঘরের, এবং রক্তের মানুষ হলেও তোমার সাথে দূরত্ব ছিল অনেক। তার সঠিক কারণ আমার জানা নেই, হতে পারে বয়সে তোমার কিছুটা ছোট ছিলাম বলে, অথবা খুব এলেবেলে ছিলাম বলে, হয়ত ভাবতে আমি আর কি এমন বুঝি ! পাত্তা দিতে না মোটেই। তাই বাবুল আর মাসুক ই ছিল আমার ভরসা। অথচ তুমি জানতেনা কত চেষ্টা ছিল মনে মনে তোমাদের সাথে থাকব বলে, মিশবো বলে। তোমার জানা ছিল না কত অবাক চোখে আমি তোমাকে দেখতাম, আমাদের রক্ষণশীল’ সমাজ কিংবা পরিবারে তুমি যথেষ্ট আধুনিক! তোমার চলাফেরা কিংবা মন মানসিকতা ছিল অন্য সবার থেকে আলাদা, আমি মুগ্ধ হয়ে দেখতাম তোমাকে, তোমার কন্ঠ, কনে সাজানো, কিংবা হাতে মেহেদি, অসাধারণ তোমার সব কাজ! কি না পারো তুমি? আমি হাহুতাশ মনে কত্ত ভাবতাম ইশ আমি যদি এমন পারতাম! অবশ্য তোমার বেড়ে উঠা, আর আমার বেড়ে উঠা ঘরে বাইরে সার্বিক পরিবেশ কিংবা পরিস্থিতি ছিল আকাশ পাতাল পার্থক্য! কিন্তু জানো আপা,এখন সেই এলেবেলে আমি দিনে দিনে কতকিছু শিখে গেছি, শিখছি….! যাইহোক তোমার হাতের ভর্তা নাকি সেইরকম ! যদিও আমার খাবার সুযোগ হয়নি এখনো। শুনেছি নানান রকম আচার নাকি বানাতে পারো আচানক? আগামীতে খাওয়া হবে নিশ্চয়ই। আজ ফেসবুকের কল্যাণে তোমাকে আরো বেশি জানার সুযোগ হলো। তোমার সাজানো গোছানো সংসারে অনেক সাধনার পরে এসেছে দুই দুটো ছোট্ট পাখি’ কি অবাক মুগ্ধতা একজন অবিকল তোমার মতো, আরেকজন অবিকল তার বাবার মতো, ভালোবাসার ভাগাভাগি এমনই হওয়া উচিত। তোমাদের পাখি’ গুলো যেন ডানা মেলে উড়ে বেড়ায় জগতময়, শুভকামনা দোয়া ভালোবাসা অশেষ। আরো অবাক আনন্দে জানলাম তুমি এখন আর শুধু ঘরের মধ্যে সীমাবদ্ধ নয়, তুমি নিজে একটা অনলাইন শপ খুলেছো, “সিলেট অনলাইন শপ” নামে। এবং আমি দেখেছি তোমার সব জিনিস যথেষ্ট কোয়ালিটি সম্পন্ন, দামে ও অনেক কম। তোমার এই যাত্রা আমার যে কি আনন্দের কি যে উত্তেজনার! তুমি একদিন জগত বিখ্যাত প্রতিষ্ঠানের তালিকায় নাম লিখাবে সেই সপ্ন আমি দেখছি… নারীর নিজে কিছু করতে পারাটা খুব বেশি দরকার! নিশ্চয়ই তুমি জীবন চলার পথে একজন ভালো সঙ্গী’ বাছাই করেছো বলে তোমার চলার পথ আরো সহজ হয়েছে। তাই দুলাভাইকে’ এই অধমের পক্ষ থেকে লাল’ ছালাম ! তোমার “সিলেট অনলাইন শপ” এর জন্য আমার দোয়া শুভকামনা অশেষ। (শুধু মাত্র ফ্রি জিনিস গুলো রেখে দিও আমার জন্য) অহ! আরেকটা কথা তোমার জনাব’ কে বলিও এত্ত সকাল সকাল বুড়ো হওয়া চলবে না,,, কি এমন বয়স? তুমি তো সেই আগের মতোই আছো আমার চির সুন্দর গুণবতী আপা ।
জানো আপা, ফেসবুকে আমি যখন প্রথম তোমাকে দেখি আগের কথা মনে করে দেখে না দেখার ভান করি, কিন্তু তুমি আমার ভাবনা কে মিথ্যা করে দিয়ে যখন নিজে রিকোয়েস্ট পাঠালে তখন আমার মনে হলো এবার বুঝি পাত্তা দিলে ! কাকতলিও ভাবে তোমার অনেক কিছুর সাথে আমার অনেক কিছু মিলে যায়, অবশেষে জানতে পারলাম আমাদের মনের ও অনেক মিল! নিশ্চয়ই আমাদের দেখা হবে কথা হবে অনেক অনেক। কাছাকাছি থেকে ও খুব কাছের ছিলাম না, অথচ এখন কত্ত দূরে থেকে ও খুব কাছের মনে হয়! আর তাই ভাবলাম মনের কথাগুলো এখানেই জানাই, আবোল তাবোল কতকিছু লিখলাম। ভলো থেকো সবসময়, তোমার তোমাদের সকলের সার্বিক শুভকামনায়….
ইতি—
তোমার হারিয়ে যাওয়া বোন ।