সুনামগঞ্জের দিরাইয়ে যাত্রীবাহি চলন্ত বাসে কলেজ ছাত্রীর শ্লীলতাহানির চেষ্টা,লাফ দিয়ে গুরুতর আহত বাসটি আটক – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

সুনামগঞ্জের দিরাইয়ে যাত্রীবাহি চলন্ত বাসে কলেজ ছাত্রীর শ্লীলতাহানির চেষ্টা,লাফ দিয়ে গুরুতর আহত বাসটি আটক

প্রকাশিত: ৯:০৯ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ২৬, ২০২০

সুনামগঞ্জের দিরাইয়ে যাত্রীবাহি চলন্ত বাসে কলেজ ছাত্রীর শ্লীলতাহানির চেষ্টা,লাফ দিয়ে গুরুতর আহত বাসটি আটক

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি
সিলেট থেকে সুনামগঞ্জের দিরাইয়ে আসার পথে একটি লোকাল যাত্রীবাহি বাসে গাড়ির চালক ও হেলপার কর্তৃক এক কলেজ ছাত্রীকে ধর্ষনের জন্য বার বার শ্লীলতাহানির চেষ্টা চালায়। ছাত্রীটি দিরাই পৌর শহরের মজলিশপুর এলাকার বাসিন্দা এবং দিরাই ডিগি কলেজে আই এ দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী। মেয়েটি দিরাই পৌরসভার হিন্দু সম্প্রদায়ের মজলিশপুর এলাকার বাসিন্দা।
স্থানীয় ও পুৃলিশ সূত্রে জানা যায়,আজ শনিবার বিকেল সাড়ে ৫টায় সিলেট থেকে দিরাইয়ের উদ্দেশ্যে ছেড়ে আসা একটি যাত্রীবাহি লোকাল বাস দিরাইয়ের পাশর্^বর্তী কর্ণগাও এলাকায় আসার পর নামিয়ে দেয়ার পর বাসে একমাত্র যাত্রী ছিলেন ঐ কলেজ ছাত্রী। তাকে একা পেয়ে চলন্ত বাসে হেলপার মেয়েটিকে বার বার ধর্ষনের চেষ্টা চালায় এবং টেনে হিচড়ে মেয়েটির শ্লীলতাহানির চেষ্টা করে । ঐ সময় মেয়েটি ইজ্জত বাচাঁতে গিয়ে চলন্তবাস থেকে জানালা দিয়ে লাফ দিলে সে পাশ্ববর্তী খাদে পড়ে মাথায় ও পায়ে প্রচন্ড আঘাতপ্রাপ্ত হন। পরবর্তীতে আশপাশের লোকজন মেয়েটির চিৎকার শুনে এগিয়ে আসলে চালক ও হেলপার পালিয়ে যায় । পরে হাবিব মিয়া নামে একজন ব্যক্তি বাড়ি অজ্ঞাতনামা ঐ মেয়েটিকে উদ্ধার করে দিরাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্রে নিয়ে আসলে ডাক্তার তাকে প্রাথমিক চিকিৎসাদেন। মেয়েটির অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাকে সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন। তবে খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে বাসটি আটক করে থানায় নিয়ে আসলেও চালক ও হেলপারকে আটক করতে পারেনি।

এদিকে এমন শ্লীলতাহানির ঘটনার খবর পেয়ে ছাত্রছাত্রীসহ স্থানীয় লোকজন সন্ধ্যায় রাস্তায় নেমে বিক্ষোভ মিছিল করে এবং ঐ চালককে দ্রুত গ্রেফতার করে কঠোর শাস্তি প্রদানের দাবী জানান। তবে এখনো পর্যন্ত গাড়ির চালক ও হেলপারের পরিচয় জানা যায়নি। তারা বর্তমানে পলাতক রয়েছে।

এ ব্যাপারে দিরাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্রের মেডিকের অফিসার ডা.বিদ্যুৎ রঞ্জন তালুকদার জানান,ঐ কলেজ ছাত্রীটিকে আহত অবস্থা মো. হাবিবুর রহমান নামে একব্যক্তিনিয়ে আসে। তার অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে সিলেটে প্রেরণ করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে দিরাই থানার অফিসার ইনচার্জ মো. আশারফুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান,বাসটি আটক করে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। পুলিশ ঘটনাটি তদন্ত করে দেখছে এব যেহেতু বাসটিকে চিহিৃত করা হয়েছে তাহলে দোষী চালক ও হেলপারকে সনাক্ত করে দ্রুত গ্রেফতার করা হবে বলে জানান তিনি।