সোমবার বিশিষ্ট নাগরিকের সঙ্গে সার্চ কমিটির বৈঠক – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

সোমবার বিশিষ্ট নাগরিকের সঙ্গে সার্চ কমিটির বৈঠক

প্রকাশিত: ৯:২৭ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ২৮, ২০১৭

সোমবার বিশিষ্ট নাগরিকের সঙ্গে সার্চ কমিটির বৈঠক

নিজস্ব প্রতিবেদক: দেশের বিশিষ্ট ১২ জন নাগরিকের সঙ্গে বৈঠক করতে যাচ্ছে নতুন নির্বাচন কমিশন (ইসি) গঠনে রাষ্ট্র্রপতিকে সহায়তার লক্ষ্যে গঠিত সার্চ কমিটি। আগামী সোমবার বিকাল ৪টায় সুপ্রিমকোর্ট ভবনের জাজেস লাউঞ্জে এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে।

শনিবার একই স্থানে সার্চ কমিটির প্রথম বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম সাংবাদিকদের এ তথ্য দেন।

এই ১২ বিশিষ্ট ব্যক্তি হলেন, বিচারপতি মো. আবদুর রশিদ, শিক্ষাবিদ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের ইমেরিটাস অধ্যাপক সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি অধ্যাপক ড. একে আজাদ চৌধুরী, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি অধ্যাপক ড. এসএমএ ফায়েজ, ঢাবির বাংলা বিভাগের সংখ্যাতিরিক্ত অধ্যাপক আবুল কাশেম ফজলুল হক, সাবেক আইজিপি নূরুল হুদা, সাবেক প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) এটিএম শামসুল হুদা, সাবেক নির্বাচন কমিশনার ছহুল হোসাইন, সাবেক নির্বাচন কমিশনার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.)সাখাওয়াত হোসেন, সুজন সম্পাদক বদিউল আলম মজুমদার, স্থানীয় সরকার বিশেষজ্ঞ তোফায়েল আহমেদ ও মানবাধিকারকর্মী সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা সুলতানা কামাল।

এর আগে সার্চ কমিটির প্রথম বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন কমিটির প্রধান সুপ্রিমকোর্টের আপিল বিভাগের বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন।

বৈঠকে কমিটির ছয় সদস্য- হাইকোর্ট বিভাগের বিচারপতি ওবায়দুল হাসান, সরকারি কর্মকমিশন চেয়ারম্যান ড. মোহাম্মদ সাদিক, মহাহিসাব নিরীক্ষক ও নিয়ন্ত্রক (সিএজি) মাসুদ আহমেদ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের অধ্যাপক ড. সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম ও চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রোভিসি অধ্যাপক ড. শিরীন আখতার উপস্থিত ছিলেন। এছাড়া তাদের সাচিবিক সহায়তা দিতে বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম।

গত ২৫ জানুয়ারি রাষ্ট্র্রপতি মো. আবদুল হামিদ বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনকে আহ্বায়ক করে ছয় সদস্যের এই সার্চ কমিটি (অনুসন্ধান কমিটি) গঠন করেন। পরে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি হয়।

কাজী রকিবউদ্দীন আহমদের নেতৃত্বাধীন বর্তমান ইসির মেয়াদ ৮ ফেব্রুয়ারি শেষ হচ্ছে। অবশ্য একজন কমিশনার একেএম শাহনেওয়াজের মেয়াদ শেষ হবে ১৫ ফেব্রুয়ারি। তাই ফেব্রুয়ারির মধ্যেই গঠন করা হবে নতুন ইসি। এ ইসির অধীনেই অনুষ্ঠিত হবে পরবর্তী জাতীয় সংসদ নির্বাচন।