স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর আগাম হুঁশিয়ারি সংগত নয়: ফখরুল – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর আগাম হুঁশিয়ারি সংগত নয়: ফখরুল

প্রকাশিত: ১২:৪৫ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ২৭, ২০১৮

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর আগাম হুঁশিয়ারি সংগত নয়: ফখরুল

দুর্নীতির এক মামলার রায় আগে থেকেই নির্ধারণ করা আছে বলে আবারও দাবি করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। বিভিন্ন সভা সমাবেশ এতিমের টাকা মেরে খাওয়ার বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যেই রায় রয়েছে বলেও দাবি করেন তিনি।

শুক্রবার বিকালে প্রয়াত কথা সা‌হি‌ত্যিক শওকত আলী‌র প‌রিবা‌রের সঙ্গে দেখা করার পর সাংবা‌দিক‌দের এক প্র‌শ্নের জবা‌বে তি‌নি এসব কথা ব‌লেন বিএনপি মহাসচিব।

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলা নিয়ে সরকারি দল আওয়ামী লীগ এবং জাতীয় পার্টির নেতাদের নানা বক্তব্যের কথা উল্লেখ করে ফখরুল দাবি করেন, আদালত যে রায় দিতে যাচ্ছে, সেটা আগেই নির্ধারিত।

বিএনপি মহাসচিব ব‌লেন, ‘অনেকক‌দিন ধ‌রেই শুরু ক‌রে‌ছে, আজ‌কে তো না। আমাদের প্রধানমন্ত্রী বহু আগেই রায় দি‌য়ে দি‌য়ে‌ছে।’

‘নিশ্চয়ই ম‌নে আছে, ওনি (প্রধানমন্ত্রী) ব‌লে দি‌য়ে‌ছি‌লেন, এতিমের টাকার ব্যাপা‌রে ব‌লে‌ছেন।’

নানা সভা-সমাবেশ ও বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার অভিযোগের বিষয়টি উল্লেখ করে খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে এতিমের টাকা মেরে খাওয়ার অভিযোগ এনেছেন।

২০০৮ সালের জুলাইয়ে খালেদা জিয়া, তার ছেলে তারেক রহমান এবং আরও চার আসামির বিরুদ্ধে যে মামলা করা হয়, তাতে অভিযোগ ছিল এতিমদের নামে আসা দুই কোটি ১০ লাখ ৭১ হাজার ৬৪৩ টাকা আত্মসাতের।

ফখরুল বলেন, ‘অন্যান্য মন্ত্রীরাও ব‌লে‌ছেন, ক‌য়েক‌দিন আগে ‌হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ সা‌হেব রংপু‌রে ব‌লে‌ছেন যে, আর মাত্র ক‌য়েক‌দিন পরে জেলে যে‌তে হ‌বে (খালেদা জিয়াকে)। আর আমা‌দের এক স্টেট মিনিস্টার (মশিউর রহমান রাঙ্গা) তি‌নিও একই কথা ব‌লে‌ছেন। এই ধর‌নের কথায় প্রমা‌ণিত হয় যে, রায় পূর্ব নির্ধা‌রিত, পূর্ব প‌রিক‌ল্পিত, দে আর প্রিপ্রেয়ারড।’

সাড়ে নয় বছর আগে করা জিয়া জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতির মামলায় রায়ের তারিখ ঘোষণা হয়েছে আগামী ৮ ফেব্রুয়ারি। বৃহস্পতিবার আদালত এই সিদ্ধান্ত জানানোর পর পর বিএনপির নেতারা বলে আসছেন, এই রায় খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে গেলে পরিণতি ভালো হবে না।

এই মামলাটি ২০০৮ সালের জুলাইয়ে করা হলেও খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করতেই লেগে যায় প্রায় ছয় বছর। ২০১৪ সালের ১৯ মার্চ অভিযোগ গঠনের মধ্য দিয়ে বিচার শুরুর আদেশ দেন ঢাকার তৃতীয় বিশেষ জজ আদালতের বিচারক বাসুদেব রায়।

এরও প্রায় চার বছর চলেছে বিচার। সব মিলিয়ে শুনানি হয়েছে ২৩৬ কার্যদিবস।

তবে ফখরুলের অভিযোগ, এই মামলাটি শেষ করা হচ্ছে নজিরবিহীন দ্রুততার সাথে। তিনি বলেন, ‘তাড়াহুড়ার মাঝে, দ্রুততার স‌ঙ্গে এ মামলা শেষ করার চেষ্টা করা হ‌চ্ছে। আমা‌দের চেয়ারপারস‌নের আইনজী‌বীরা প‌রিষ্কারভা‌বে ব‌লে দি‌য়ে‌ছে যে, জা‌স্টিস হা‌রিড ইজ জা‌স্টিস বা‌রিড।’

‘অনেক কথা বলা হ‌চ্ছে কিন্তু তারা কর্ণপাত কর‌ছেন না। কারণ তারা ডিটা‌র‌মাইন্ড যে, তারা আগামী নির্বাচন কর‌তে চান বিএন‌পি‌কে বাদ দি‌য়ে। এবং সেই জন্যই এই তাড়াহুড়া ক‌রে বিচার কাজ শেষ করা হচ্ছে। সে জন্যই এই সমস্ত ক‌মেন্ট করা।’

রায় বিরুদ্ধে গেলে দেশে আগুন জ্বালানোর ঘোষণা এসেছে বিএনপির পক্ষ থেকে। আবার পাল্টা সতর্কতা দিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামালের পক্ষ থেকে। তিনি বলেছেন, ‘আমাদের নিরাপত্তা বাহিনীকে আগের নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে তুলনা করা চলবে না। তারা জনগণের বন্ধু, তারা পেশাদার পুলিশ। কাজেই বিশৃঙ্খলা কিংবা ধ্বংসাত্মক কিছু ঘটলে আমাদের নিরাপত্তা বাহিনী ব্যবস্থা নেবে।’

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর এমন হুঁশিয়ারির জবাবে ফখরুল বলেন, ‘এমন বক্তব্য তো নতুন না। …গত চার বছর ধ‌রে প্র‌তি‌টি প্র‌তি‌টি দিন, প্র‌তি‌টি ক্ষণ, তারা এইভা‌বে হুম‌কি দি‌য়ে‌ছেন, তারা শ‌ক্তি প্র‌য়োগ ক‌রে‌ছেন, বলপ্র‌য়োগ ক‌রে‌ছেন, ভিন্নমত পোষণকারী কাউ‌কেই তারা আপনার সু‌যোগ দি‌তে রা‌জি না।…সুতরাং তা‌দের মুখ দি‌য়ে এ ধর‌নের কথা বের হ‌বে এটাই তো স্বাভা‌বিক।’

রায় ঘোষণাকে সামনে রেখে বিএনপি নেতাদের নানা হুঁশিয়ারির বিষয়ে জানতে চাইলে ফখরুল বলেন, ‘আমরা তো কোন কর্মসূ‌চি ঘোষণা ক‌রি‌নি এখন পর্যন্ত।’