স্বাস্থ্যবিধি মেনে জুম্মার নামাজ আদায়: চোখের পানি ছেড়ে আল্লাহর সাহায্য কামনা – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

স্বাস্থ্যবিধি মেনে জুম্মার নামাজ আদায়: চোখের পানি ছেড়ে আল্লাহর সাহায্য কামনা

প্রকাশিত: ৩:২৫ অপরাহ্ণ, মে ২৯, ২০২০

স্বাস্থ্যবিধি মেনে জুম্মার নামাজ আদায়: চোখের পানি ছেড়ে আল্লাহর সাহায্য কামনা

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের সংক্রমণ থেকে রক্ষার জন্য সিলেটের সকল মসজিদে মোনাজাত করা হয়। মোনাজাতে মুসল্লিরা চোখের পানিতে আল্লাহর রহমত কামনা করেন। তওবা করেন, আল্লাহর কাছে ক্ষমা চান। এই মহামারী করোনাভাইরাসের সংক্রমণ থেকে সকলকে রক্ষার জন্য আল্লাহর কাছে প্রার্থনা করেন।

করোনার সংক্রমণ রোধে আজ শুক্রবার (২৯ মে) হযরত শাহজালাল (রহ.) দরগাহ মসজিদে দূরত্ব বজায় রেখে জুম্মার নামাজ আদায় করেছেন মুসল্লিরা। নগরীর অন্যান্য মসজিদের ইমামগনও দূরত্ব বজায় রেখে নামাজ আদায়ের জন্য মুসল্লিদের বলেন। এ ছাড়া মসজিদে শুধু খুৎবা এবং জুমার দুই রাকাত ফরজ নামাজ আদায় করা হয়। সুন্নত নামাজ নিজ নিজ বাসায় পড়ার জন্য নির্দেশ দেয়া হয়।

নগরীর বন্দরবাজার কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ, কোর্ট পয়েন্টে কালেক্টরেট জামে মসজিদ, আম্বরখানা জামে মসজিদ, বায়তুল আমান জামে মসজিদ, শামীমাবাদ আল জান্নাত জামে মসজিদসহ অন্যান্য মসজিদে জুমার নামাজে মুসল্লির উপস্থিতি ছিল অনেক।

সব মসজিদেই দূরত্ব বজায় রেখে মুসল্লিরা নামাজ আদায় করেছেন। নামাজ শুরু হওয়ার আগে মুয়াজ্জিন ঘোষণা করেন, নিজ নিজ দুরত্ব বজায় রেখে কাতার সোজা করবেন সবাই। কারো গায়ে যেন না লাগে। এরপর নামাজ শুরু হয়।

দরগাহ মসজিদের এক মুসল্লি নামাজ শেষে বলেন, দূরত্ব বজায় রেখে নামাজ আদায় করা এ মুহূর্তে সবার দায়িত্ব। কারো গায়ে যেন গা না লাগে, তা সবার মেনে চলা উচিত। তিনি আরও বলেন, জুমার নামাজ তো আদায় করতে হবে, আল্লাহর কাছে ক্ষমা চাইতে হবে, এ জন্য আমি আসা বাদ দিতে পারিনি। তবে দরত্ব বজায় রেখে দাঁড়ানোর কারণে ঝুঁকি অনেকটাই কমে গেছে।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

ফেসবুকে সিলেটের দিনকাল