স্যামুয়েলসের ব্যাটে উইন্ডিজের জয় – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

স্যামুয়েলসের ব্যাটে উইন্ডিজের জয়

প্রকাশিত: ১০:৪৯ পূর্বাহ্ণ, জুন ১৪, ২০১৬

স্যামুয়েলসের ব্যাটে উইন্ডিজের জয়

samuelsসম্মিলিত প্রয়াস বলাই ভালো। কিন্তু আলাদাভাবে নিতে হবে মারলন স্যামুয়েলসের নাম। তাঁর ৯২ রানের দুর্দান্ত ইনিংসটিই হয়ে আছে ওয়েস্ট ইন্ডিজের ইনিংসের মেরুদণ্ড। শক্ত মেরুদণ্ডে ভর দিয়েই আগে ব্যাট করে অস্ট্রেলিয়ার তোলা ২৬৫ রানকে ২৬ বল বাকি রেখে টপকে গেছে ক্যারিবীয়রা। ৪ উইকেটের এই পরাজয় ত্রিদেশীয় সিরিজে অস্ট্রেলিয়ার দ্বিতীয় হার।

টসে জিতে অস্ট্রেলিয়াকে ব্যাটিংয়ে পাঠিয়ে কিন্তু বিশাল রানের নিচে চাপা পড়ার ঝুঁকিতেই ছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ব্যাটিং অর্ডারে ১ নম্বরে উঠে আসা উসমান খাজার ৯৮ রান গড়ে দিয়েছিল অস্ট্রেলিয়ার বড় সংগ্রহের ভিত্তি। মাত্র ২ রানের জন্য ক্যারিয়ারের প্রথম ওয়ানডে সেঞ্চুরিটি পাননি খাজা। তবে তাঁর গড়ে দেওয়া ভিতের ওপর দাঁড়িয়ে ভালোই ব্যাট করছিলেন স্টিভেন স্মিথ ও জর্জ বেইলি। স্মিথ ৭৪ আর বেইলি ৫৫ রানে আউট হলে পথ হারিয়ে ফেলে অস্ট্রেলিয়াও। ৩৪ ওভারে ১ উইকেটে ১৭১ থেকে যেখানে বড় সংগ্রহের দিকেই এগোনোর কথা অস্ট্রেলিয়ার, সেখানে তাদের ইনিংস শেষ হয় ৭ উইকেটে ২৬৫ রানেই।
ওয়েস্ট ইন্ডিজের পক্ষে ২টি করে উইকেট তুলে নিয়েছেন জেসন হোল্ডার, ক্রেইগ ব্রাফেট ও কাইরন পোলার্ড।
অস্ট্রেলিয়ার ২৬৫ রানের জবাবটা শুরু থেকেই দারুণভাবে দিয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ১০ ওভারের আগেই বিনা উইকেটে ৭৪ রান তুলে ফেলা ক্যারিবীয়রা বাকি কাজটা করেছেন মাথা ঠান্ডা রেখেই। মারলন স্যামুয়েলসের ব্যাট থেকে এসেছে ৯২, এর আগে দুই উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান জনসন চার্লস ৪৮ আর আন্দ্রে ফ্লেচার ২৭ রান করে বাড়িয়ে দিয়ে গিয়েছিলেন আত্মবিশ্বাসটা। ওয়েস্ট ইন্ডিজের জয়টা আরও উপভোগ্য হতে পারত, যদি স্যামুয়েলস সেঞ্চুরি পেতেন। ৮৭ বলে ৮ চার আর ৪ ছয়ে সাজানো তাঁর এই ইনিংস শেষ হয় রান আউটের দুর্ভাগ্যে।
স্যামুয়েলস ও চার্লসের দুটি ইনিংসের সঙ্গে ডোয়াইন ব্রাভোর ৩৯, দিনেশ রামদিনের ২৯ আর কাইরন পোলার্ডের ১৬ রানে জয় নিশ্চিত হয় ওয়েস্ট ইন্ডিজের। অস্ট্রেলিয়ার পক্ষে নাথান কোল্টার নাইল ও অ্যাডাম জামপা ২টি করে উইকেট নিলেও তা অস্ট্রেলিয়ার জন্য যথেষ্ট হয়নি।