১৫ ই আগষ্ট ছিলো ইতিহাসের এক নৃশংসতম কালো অধ্যায় : সুষমা দাস – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

১৫ ই আগষ্ট ছিলো ইতিহাসের এক নৃশংসতম কালো অধ্যায় : সুষমা দাস

প্রকাশিত: ৮:২৭ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১২, ২০১৮

১৫ ই আগষ্ট ছিলো ইতিহাসের এক নৃশংসতম কালো অধ্যায় : সুষমা দাস

একুশে পদকপ্রাপ্ত গুনীশিল্পী সুষমা দাস বলেছেন, জাতির জনক ও তারঁ পরিবারবর্গকে হত্যা করা ছিলো ইতিহাসের এক নৃশংসতম কালো অধ্যায়। জঘণ্যতম এই হত্যাকা-ের মাধ্যমে এদেশের ক্ষমতালোভী একটি অপশক্তি দেশকে অভিভাবক শুণ্য করে নিজেদের নীলনকশা বাস্তবায়নের প্রয়াস চালিয়েছিলো। নির্মম এই হত্যাকা-ের পর জাতির জনক বঙ্গবন্ধু তনয়া জননেত্রি শেখহাসিনা রাষ্ট্রক্ষমতায় আসিন হয়ে কুখ্যাত খুণীদের বিচারের উদ্যোগ গ্রহণ করেন।

তিনি বলেন, এখন শুধু দাবী একটাই-পাশ্চাত্যের বিভিন্ন দেশে পলাতক থাকা খুনীদের অবিলম্বে দেশের মাটিতে ফেরত এনে দ্রুত ফাঁিসর রায় কার্যকর করতে হবে।
তিনি রবিবার “আমরা বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচার চাই” আবহবিচ এর উদ্যোগে আয়োজিত সিলেট কেন্দ্রিয় শহিদমিনার প্রাঙ্গণে এক মানববন্ধনে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখছিলেন।

সংগঠনের সভাপতি মুকির হোসেন চৌধুরী’র সভাপতিত্বে ও দেবব্রত রায় দিপনের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে প্রধান আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের কেন্দ্রিয় কার্যনির্বাহী পরিষদের সদস্য ও সিলেট মহানগর আওয়ামীলীগের সভাপতি বদর উদ্দিন আহমদ কামরান। উপস্থিত ছিলেন সিনিয়র সাংবাদিক আল আজাদ, ওয়ার্কাস পার্টি সিলেটের সাধারণ সম্পাদক কমরেড সিকান্দর আলী, বিশিষ্ট সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব এনামুল মুনীর, সম্মিলিত নাট্য পরিষদ সিলেটের সভাপতি মিশফাক আহমদ মিশু, সাধারন সম্পাদক রজত কান্তি গুপ্ত, ছড়াকার অজিত রায় ভজন,গীতিকবি হরিপদ চন্দ, ২৬ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের যুগ্ম সম্পাদক এম এন ইসলাম,জেলা শ্রমিকলীগের সহ সভাপতি আং সাত্তার, ২৬ নং ওয়ার্ড স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি আনোয়ার হোসেন, দক্ষিণ সুরমা কাঠব্যবসায়ী কল্যাণ সমিতির সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার হোসেন জোবায়ের,জাতীয় শ্রমিকলীগ জেলা নির্বাহী সদস্য হেলাল আহমদ, আওয়ামীলীগ নেতা আবু মিয়া, শ্রমিকলীগ নেতা আবু মিয়া,কামরুল ইসলাম সোহেল, বঙ্গবন্ধু ফাউ-েশনের বদরুল ইসলাম লস্কর রাজু ও যুবনেতা আলমগীর হোসেন প্রমুখ।
প্রধান আলোচকের বক্তব্যে বদর উদ্দিন আহমদ কামরান বলেন, ৭৫’ এ জাতির জনক হত্যাকা-ের মাধ্যমে মুলত বাংলার রক্তস্নাত ইতিহাসকে মুছে ফেলার অপচেষ্টা চালানো হয়েছিলো। এরই ধারাবাহিকতায় সেই অপশক্তিচক্র আজো বাংলার আনাচে-কানাচে থেকে দেশকে অস্থিতিশীল করার অপচেষ্টা চালিয়ে আসছে। তিনি সবাইকে চোখ কান খোলা রেখে আগামী একাদশ সংসদ নির্বাচনে দেশবান্ধব আওয়ামীলীগ সরকারকে সমর্থন জানিয়ে দেশকে অস্থিতিশীল মুক্ত করার আহবান জানান। তিনি জনকহত্যায় জড়িত বিদেশে পলাতক কুখ্যাত খুনিদের দ্রুত দেশে ফিরিয়ে এনে ফাঁসির রায় কার্যকরের জন্য বঙ্গবন্ধু তনয়া জননেত্রি প্রধানমন্ত্রী শেখহাসিনার প্রতি এ সময় জোর দাবি জানান।
সভাপতির বক্তব্যে সংগঠনের সভাপতি মুকির হোসেন চৌধুরী ১৯৭৮ সাল থেকে প্রতিষ্ঠা হওয়ার পর থেকে আবহবিচ জনক হত্যায় জড়িত সকল খুনিদের বিচারের দাবিতে সিলেটের রাজপথে স্বোচ্চার ভুমিকা পালন করেছে। এরই ধারাবাহিকতায় বর্তমান আওয়ামীলীগের সরকার ক্ষমতায় আসায় পর হত্যাকারীদের বিচারের রায় প্রদান করার মধ্য দিয়ে বাঙ্গালী জাতিকে কলংকমুক্ত করার উদ্যোগ গ্রহণ করে। কিন্তু দুর্ভাগ্যজনকভাবে কিছু খুনী পাশ্চাত্যে বিভিন্ন দেশে পালিয়ে থাকায় তাদের ফাঁসির আওতায় আনা যাচ্ছেনা। তিনি অবিলম্বে কুটনৈতিক তৎপরতা আরো বৃদ্ধি করে সিলেটের কুখ্যাত কুলাঙ্গার মেজর (অব:) নুর সহ সকল খুনীদের দ্রুত ফিরিয়ে এনে ফাঁিসর রায় কার্যকর করার মাধ্যমে সিলেট সহ গোটা দেশকে কলঙ্কমুক্ত করার জন্য সরকারের প্রতি আহবান জানান।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

ফেসবুকে সিলেটের দিনকাল