৩ নেতার হস্তক্ষেপে আটকে গেলে সিলেট জেলা ও মহানগর বিএনপির পূর্ণাঙ্গ কমিটি – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

৩ নেতার হস্তক্ষেপে আটকে গেলে সিলেট জেলা ও মহানগর বিএনপির পূর্ণাঙ্গ কমিটি

প্রকাশিত: ১:৩৪ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ২৮, ২০১৭

৩ নেতার হস্তক্ষেপে আটকে গেলে সিলেট জেলা ও মহানগর বিএনপির পূর্ণাঙ্গ কমিটি

সিলেট জেলা ও মহানগর বিএনপির ৭নেতা গোপন ভোটে নির্বাচিত হওয়ার প্রায় ১বছর পর পূর্ণাঙ্গ হতে যাচ্ছে কমিটি। আগামী দু, এক সপ্তাহ’র মধ্যেই ঘোষিত হচ্ছে সিলেট জেলা ও মহানগর বিএনপির পূর্ণাঙ্গ কমিটি। এমন তথ্য জানিয়েছেন সিলেট মহানগর বিএনপির সাধারন সম্পাদক মোঃ বদরুজ্জামান সেলিম। জানা যায়, পূর্ণাঙ্গ কমিটি করার লক্ষ্যে ঢাকায় অবস্থান করছেন সিলেট জেলা ও মহানগর বিএনপির শীর্ষ নেতৃবৃন্দ। কিন্তু ইলিয়াস পত্নি লুনা রুশদী, মেয়র আরিফ ও দিলদার হোসেন সেলিমের বাধায় আটকে গেছে সিলেট জেলা ও মহানগর বিএনপির পূর্ণাঙ্গ কমিটির অনুমোদন পক্রিয়া, এমন তথ্যও পাওয়া গেছে বিশ্বস্থ সূত্রে। নাম প্রকাশ না করার শর্তে একজন শীর্ষ নেতা অভিযোগ করে বলেছেন অনেক ত্যাগী আর পরীক্ষিত নেতাকর্মীর নাম বাদ দিয়ে নিজ নির্বাচনী এলাকার পছন্দসই লোক এবং একান্ত নিজস্ব অনুসারীদের নিয়ে কমিটি করা হচ্ছে , যোগ্যতা ও অভিজ্ঞতার ভিত্তিতে পদবিন্যাস করা হচ্ছে না । তারই আলোকে বিয়ানীবাজার, গোলাপগঞ্জ, দক্ষিণ সুরমা এই তিন উপজেলার নেতাকর্মীরা জেলা বিএনপিতে প্রাধান্য পেয়েছেন বেশি। বঞ্চিত হয়েছেন সিলেট জেলার অন্যান্য উপজেলার ত্যাগি নেতাকর্মীরা । নানা সমস্যার কারণে কেন্দ্রীয় কমিটির কাছে সিলেট জেলা ও মহানগর বিএনপির পুরো কমিটি জমা দিতে পারছিলেন না তারা। অবশেষে গত শুক্রবার সব সমস্যার সমাধান করে কেন্দ্রের কাছে পূর্ণাঙ্গ কমিটি হস্তান্তর করার কথা ছিল। কিন্তু কেন্দ্র সাফ বলে দিয়েছে সবার সমন্বয়ে কমিটি জমা দিতে হবে । এ ব্যাপারে জেলা সভাপতি আবুল কাহের চৌধুরী শামীম বলেন, ‘সকল বাধা কাটিয়ে ও বিএনপির গঠনতন্ত্র অনুসারে ১৭১ সদস্য বিশিষ্ট পূর্ণাঙ্গ কমিটি কেন্দ্রীয় কমিটির কাছে জমা দিয়েছি আমরা। সিলেট বিএনপির মেধাবী, ত্যাগী, পরীক্ষিত ও প্রকৃত নেতাকর্মীদের মূল্যায়ন করা হয়েছে। এখন অপেক্ষা অনুমোদনের, কেন্দ্রীয় কমিটির হাতে নির্ভর করছে কবে, কখন ঘোষণা হবে এই কমিটি।’ কমিটি অনুমোদনের ব্যাপারে বিএনপি যুগ্ম-মহাসচিব মোহাম্মদ শাহজাহান বলেন, সিলেট জেলা ও মহানগর বিএনপির সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক পুর্ণাঙ্গ কমিটি আমাদের কাছে নিয়ে এসেছেন। এখন সিলেট বিএনপির সিনিয়র নেতাদের সাথে পর্যালোচনা করে অতি শীঘ্রই এ কমিটি অনুমোদন দেওয়া হবে।