৬ ঘন্টা পর গোলাপগঞ্জ শান্ত ; ৬০ রাউন্ড গু‌লি রাবার বু‌লেট টিয়ার শেল নি‌ক্ষেপ, সম‌ঝোতার উ‌দ্যোগ – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

৬ ঘন্টা পর গোলাপগঞ্জ শান্ত ; ৬০ রাউন্ড গু‌লি রাবার বু‌লেট টিয়ার শেল নি‌ক্ষেপ, সম‌ঝোতার উ‌দ্যোগ

প্রকাশিত: ৫:২৬ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ৬, ২০১৭

৬ ঘন্টা পর গোলাপগঞ্জ শান্ত ; ৬০ রাউন্ড গু‌লি রাবার বু‌লেট টিয়ার শেল নি‌ক্ষেপ, সম‌ঝোতার উ‌দ্যোগ

সিলেটের গোলাপগঞ্জে কিশোরীর লাশ দাফন নিয়ে দুই গ্রামবাসীর মধ্যে সংঘর্ষ থে‌মে‌ছে।পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশের পক্ষ থেকে ৬০ থেকে ৭০ রাউন্ড টিয়ারশেল ও রাবার বুলেট নিক্ষেপ ক‌রে‌ছে। প্রায় ৬ ঘন্টা পর সি‌লেট গোলাপগঞ্জ জ‌কিগঞ্জ সড়‌কে যান চলাচল শুরু হ‌য়ে‌ছে। উভয় পক্ষ প্রশাস‌নের মধ্যস্থতায় রাজী হ‌য়ে‌ছেন। ত‌বে এলাকায় থমথ‌মে প‌রি‌স্থি‌তি বিরাজ কর‌ছে।

তাছাড়া  করা হয়। অপরদিকে সংঘর্ষ চলাকালিন দুপুর দুইটা থেকে এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত (সন্ধ্যা ৬টা) সড়ক অবরোধ রেখেছে স্থানিয় জনতা।পরিস্তি নিয়ন্ত্রণ করতে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন গোলাপগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) একেএম ফজলুল হক শিবলী।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, দীর্ঘ দিন যাবৎ ক্যান্সার রোগে আক্রান্ত ছিলেন গোলাপগঞ্জ উপজেলার ফুলবাড়ি উত্তরপাড়া গ্রামের কালাম মিয়ার মেয়ে ফারজানা বেগম(১৪)। তিনি বৃহস্পতিবার সকালে মৃত্যু বরণ করেন। তাকে ঐ দিন যোহরের নামাজের পর তার লাশ দাফন করা হয় ফুলবাড়ির পঞ্চায়েতি কবরস্থান বড় মোকামে। কিন্তু ঐ কবরস্থান নিয়ে দীর্ঘ দিন যাবৎ বিরোধ চলে আসছে ফুলবাড়ি পূর্বপাড়া ও উত্তর পাড়ার মধ্যে। কোন এলাকার লোকজন মাজা‌রের কোন‌ অং‌শে দাফন করা হ‌বে সে নি‌য়ে ২০০২ সা‌লে উভয় গ্রামবাসীর ম‌ধ্যে সিদ্ধান্ত হয়।

স্থানীয় সূত্র জা‌নি‌য়ে‌ছে, দাফ‌নেরে পূ‌র্বে ঐ নিধা‌রিত অং‌শে‌র বাই‌রে অন্য অং‌শে কবর খোড়ার উ‌দ্যোগ নি‌লে পূর্ব পাড়ার মুরব্বী নুর উ‌দ্দিন নূরা তা‌দের‌কে ব‌লেন,এভা‌বে হ‌লে ঝা‌মেলা হ‌বে। নানা কথা উঠ‌বে। উত্তর পাড়ার লোকজ‌নের জন্য নির্ধ‌ারিত অং‌শে কবর খুড়ার জন্য তি‌নি সং‌শ্লিষ্ট‌দের ব‌লেন। তখন তারা একটু স‌রে নিধা‌রিত অং‌শে কবর খু‌ঁড়েন এবং জোহ‌রের নামা‌জের পর জানাজা শে‌ষে ফারজানার লাশ দাফন করা হয়। জানাজা শে‌ষে যখন সবাই ফি‌রে যা‌চ্ছি‌লেন তখন নুর উ‌দ্দিন নূরা‌কে ডে‌কে এনে মার‌পিট ক‌রে জেবুলসহ ক‌য়েক যুবক। তখন এখবর পৌ‌ছে পূর্ব পাড়ায়। ফ‌লে উ‌ত্তেজনা ছ‌ড়ি‌য়ে প‌ড়ে।

এসময় পূর্বপাড়া ও উত্তরপাড়ার জামে মসজিদের মাইকে ঘোষণা দিয়ে শুরু হয় সংঘর্ষ ও উভয় পক্ষ থেকে ধাওয়া-পাল্টা-ধাওয়া এবং ইট পাটকেল নিক্ষেপ। এ ঘটনায় সিলেট-জকিগঞ্জ মহাসড়কের উপর টায়ার জ্বালিয়ে বন্ধ করে দেয়া হয় যোগাযোগ। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে গোলাপগঞ্জ থানা পুলিশ ও গোলাপগঞ্জ পৌরসভা মেয়র সিরাজুল জব্বার ঘটনাস্থলে পৌছালে  উভয় পক্ষের দাঙ্গা থামাতে গিয়ে ইট-পাটকেলের আঘাতে আহত হন মেয়র।এ সংঘর্ষে মেয়র ছাড়াও গোলাপগঞ্জ থানার ওসি শিবলী, এসআই আবু তাহের, এসআই শংকরসহ অর্ধশত লোক আহত হয়েছেন। পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে  প্রায় ৬০ রাউন্ড টিয়ারশেল নিক্ষেপ করে।  দীঘর্ প্র‌চেষ্টার পর গোলাপগঞ্জ উপ‌জেলা

নির্বাহী কমর্কর্তা, র্যাব পু‌লি‌শের কর্মকর্তা‌দের মধ্যস্থতায় বিষয়‌টি সা‌লি‌শে নিষ্প‌ত্তি‌তে রাজী হন উভয় পক্ষ। ফ‌লে রাত ৯টার প‌রি‌স্থি‌তি নিয়ন্ত্র‌ণে আ‌সে। এ লাকায় শা‌ন্তি বজায় রাখ‌তে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে গোলাপগঞ্জ পৌরসভা মেয়র সিরাজুল জব্বার জানান, তিনি সংর্ঘষের খবর পেয়ে ফুলবাড়ি এলাকায় যান। সেখানে গিয়ে সংঘর্ষ থামাতে তিনি ইট-পাটকেলের ছোড়া ঢিলে নাকে আঘাত পেয়ে আহত হন।

এ ব্যাপারে গোলাপগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) একেএম ফজলুল হক শিবলী জানান, বর্তমা‌নে প‌রি‌স্থি‌তি শান্ত র‌য়ে‌ছে। ।