রূপসী বাংলার নৈসর্গিক সৌন্দর্য নিয়ে বিজিপিএ-র ৩ দিনব্যাপী প্রদর্শনী শুরু – দৈনিক সিলেটের দিনকাল

রূপসী বাংলার নৈসর্গিক সৌন্দর্য নিয়ে বিজিপিএ-র ৩ দিনব্যাপী প্রদর্শনী শুরু

প্রকাশিত: ৬:০৫ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ১৩, ২০১৭

রূপসী বাংলার নৈসর্গিক সৌন্দর্য নিয়ে বিজিপিএ-র ৩ দিনব্যাপী প্রদর্শনী শুরু
নিজস্ব প্রতিবেদক: মেয়র আলহাজ্ব সাঈদ খোকন বলেন, ছবির মাধ্যমেই উৎসাহিত হয়ে আমি নগর গঠনে এগিয়ে এসেছি। ঢাকা শহরের অধিকাংশ ফুটপাতে আগে চলাফেরা করতে অনেক কষ্ট হতো, কিন্তু এখন সেখানে মানুষ সুন্দর ভাবে হাঁটতে পারছে। তিনি আরো বলেন, যেখানে ১০ বছরের শিশুরা ড্রাইভারের আসনে বসে গাড়ী চালাতো, এখন সিটি কর্পোরেশনের উদ্যোগে অভিযান চালিয়ে সেটা অনেকটাই নিয়ন্ত্রন করতে অনেকটা সক্ষম হয়েছি। আপনারা ফটো সাংবাদিকরা পাশে থাকলে এই নগরকে আরো পরিচ্ছন্নভাবে আপনাদের উপহার দিতে পারবো বলে আমি বিশ্বাস করি।
/

বৃহস্পতিবার সকালে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আলহাজ্ব সাঈদ খোকন বাংলাদেশ ফটো জার্নালিস্ট এসোসিয়েশনের  উদ্যোগে ৩দিনব্যাপী রূপসী বাংলা ফটো প্রদর্শনীর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন ।

এ সময় তিনি আগামী দিনগুলোতে সার্বিক উন্নয়ন ও কাঙ্ক্ষিত সেবা প্রদানে সকলের সহযোগিতা কামনা করেন ।

অধিকার আদায়ের লক্ষ্যে সাংবাদিকদের ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানিয়ে বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি শওকত মাহমুদ বলেন, অধিকার আদায়ের জন্য ঐক্যবদ্ধ না হলে কিছুই আদায় করা যাবে না, তাই আমাদের সকল বিভেদ ভুলে সাংবাদিককে একযোগে কাজ করতে হবে।000দ্বন্দ্ব ও বিভেদের কারণে সাংবাদিকরা বিভিন্ন সুযোগ সুবিধা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন মন্তব্য করে বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের মহাসচিব ওমর ফারুক বলেন,    সকল বিভেদ ভুলে আপনারা ঐক্যবদ্ধ  থাকুন আমরা এগিয়ে যাব, কেউই আমাদের বাধার কারণ হয়ে দাঁড়াতে পারবেনা ।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্যে  জাতীয় প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ফরিদা ইয়াসমিন বলেন, বর্ষবরণের চিরায়ত উৎসব আমাদের সংস্কৃতি অঙ্গনকে উজ্জীবিত করে। নিজস্ব সংস্কৃতির ক্রমবিকাশে এই ধারা অব্যাহত রেখে সাংস্কৃতিক অঙ্গনকে আরো গতিশীল করতে হবে। তবেই এ দেশের সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য স্বমহিমায় সমুজ্জ্বল হয়ে থাকবে।

এসোসিয়েশনের  প্রধান উপদেষ্টা মোহাম্মদ এনায়েত করীম বলেন, সাংবাদিকের কলমের কালি শহীদের রক্তের সমান। দেশের সার্বিক উন্নয়নে সাংবাদিকদের ভূমিকা অপরিসীম। বিশেষ করে ফটো সাংবাদিকরা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে তাদের পেশাগত দায়িত্ব পালন করেন ।   কিন্তূ আজ পেশাদার সাংবাদিকরা অনেকটা অবহেলিত-উপেক্ষিত, তাই তাদের পাশে থাকার আহ্বান জানান।

শুভ নববর্ষে বিগত বছরের দুঃখ-বেদনা, ব্যর্থতা-মালিন্য পিছনে ফেলে সকলকে নতুনভাবে জীবন শুরু করার আহবান  জানিয়ে বিজিপিএ উপদেষ্টা হেলেনা জাহাঙ্গীর বলেন, সকল জরা ও গ্লানি মুছে দিয়ে বাঙালির জীবনে সুখ, সমৃদ্ধি ও অনাবিল আনন্দ বয়ে আনবে।সৈয়দ রাজিয়া মোস্তফা বলেন, দেশব্যাপী বৈশাখি মেলা, চৈত্রসংক্রান্তির পালা-পার্বন, নববর্ষের প্রতিটি মিছিল-শোভাযাত্রা পরিণত হবে মৌলবাদ, সাম্প্রদায়িকতা, অন্যায়-অবিচার, শোষণ-বৈষম্য এবং ক্ষুধা-দারিদ্র্যের বিরুদ্ধে সংগ্রামের হাতিয়ারে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ফটো জার্নালিস্ট এসোসিয়েশনের সভাপতি এ কে এম মহসিন, সাধারণ সম্পাদক গোলাম মোস্তফা ও এসোসিয়েশনের পৃষ্ঠপোষক জয়নাল আবেদীন রতন ।

বাংলাদেশ ফটো জার্নালিস্ট এসোসিয়েশনের  উদ্যোগে এ প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয় সংগঠনটির পুরানা পল্টনস্থ নিজস্ব মিলনায়তনে।

বৃহস্পতিবার ১৩ ও ১৪-১৫ এপ্রিল সকাল ১০টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত সর্বসাধারণের উন্মুক্ত করে দেয়া হয়েছে।

রূপসী বাংলা ফটো প্রদর্শনীতে সারাদেশ থেকে ৫০০ ফটো সাংবাদিকের তোলা ১১শ ছবির মধ্যে বাছাই করে ৫৬ জন ফটো সাংবাদিকের শতাধিক ছবি পদর্শনীর চূড়ান্ত করা হয়। এই ছবিগুলোর মধ্যে বিচার কার্য সম্পন্ন করে ৩ জন ফটো সাংবাদিকে সেরা আলোকচিত্রী পুরস্কারের জন্য মনোনীত করা হয়, (প্রথম হয়েছেন নয়া দিগন্ত শফিউদ্দিন বিটু, দ্বিতীয় হয়েছেন ডেলি স্টারের আনিসুর রহমান ও তৃতীয় হয়েছেন সকালের খবরের মোহাম্মদ আসাদ)।

নববর্ষ উপলক্ষে প্রতিবারের মতো ফটো প্রদর্শনীর পাশাপাশি এবারও স্মরণিকা ও ফটো অ্যালবাম প্রকাশিত হয়।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

ফেসবুকে সিলেটের দিনকাল